আগের দিনই জয় প্রায় নিশ্চিত হয়ে যায় ঢাকা বিভাগের। দরকার ছিল মাত্র ১৮ রান। গতকাল এনসিএলে সেই ১৮ রান অনায়াসেই যোগ করে তারা। তাতে সিলেটের একাডেমি গ্রাউন্ডে সিলেট বিভাগকে ৭ উইকেটে পরাজিত করে ঢাকা বিভাগ। দলটির হয়ে বল হাতে আলো ছড়ান নাজমুল ইসলাম অপু। দুই ইনিংসে নেন ১০ উইকেট।

প্রথম ইনিংসে ৬৭ রানেই গুটিয়ে যায় সিলেট। জবাবে ঢাকা বিভাগও বেশিদূর যেতে পারেনি। ১৭৬ রান তোলে তারা। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে সিলেট আবারও মুখ থুবড়ে পড়ে। ১৭৪ রানেই অলআউট হয়ে যায় তারা। যে কারণে জয়ের পথও সহজ হয়ে যায় ঢাকার।

জয়ের সুবাস পাচ্ছে চট্টগ্রাম বিভাগও। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম ইনিংসে ৩৪৯ রানের বড়সড় সংগ্রহ দাঁড় করায় চট্টগ্রাম। জবাবে রাজশাহী বিভাগ করে ২৫৯ রান। আর চট্টগ্রামের জয়ের জন্য টার্গেটও কমে আসে। মঙ্গলবার দ্বিতীয় ইনিংসে ২ উইকেট হারিয়ে ১৫ রান করে দিন শেষ করে চট্টগ্রাম। প্রথম ইনিংসে তাদের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সংগ্রহ আসে ইয়াসির আলীর ব্যাট থেকে, তিনি করেন ১২৯ রান। রাজশাহীর শুরুটা ভালো না হলেও মিডল অর্ডারে ভালোই রান আসে। ৬৮ রান করেন তৌহিদ হৃদয় আর ৫৩ রান করে আউট হন জহুরুল ইসলাম। শেষদিকে নিয়মিত উইকেট খোয়ানোর মাঝে ফরহাদ রেজার ৪০ ও সানজামুলের ৩৯ কিছুটা সংগ্রহ বাড়ায়।

দিনের আরেক ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ২৪১ রানে অলআউট হয় বরিশাল বিভাগ। দ্বিতীয় ইনিংসে ঢাকা মেট্রো কোনো উইকেট না হারিয়ে ২৫ রান করে দিন শেষ করে। বরিশালের হয়ে ৬৯ রান করেন সালমান হোসেন ইমন। এ ছাড়া উইকেটকিপার ব্যাটার শামসুল ইসলামের ব্যাট থেকে আসে ৫৮ রান।

মন্তব্য করুন