পনেরো বছরের লম্বা ক্যারিয়ারে নেই তেমন অর্জন। সব মিলিয়ে দুটি ট্রফি জিতেছেন। গ্র্যান্ডস্ল্যামে গত কয়েক বছর নেই আলোচনায়। যেখানে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ প্রাপ্তি ২০০৯ সালের ফ্রেঞ্চ ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়া। ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ র‌্যাকিং ২১; সেটাও ২০১৩ সালের দিকের কথা। এরপর মাঝেমধ্যে টেনিস কোর্টে চমক দেখিয়ে নিভে যান সোরানা মিহেলা। এবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে নিয়মিতই যেন ঝলক দেখাচ্ছেন ৩১ বছর বয়সী এই রোমানিয়ান। সর্বশেষ গতকাল মেলবোর্নের রড লেভার অ্যারেনায় ফর্মে থাকা আনাসতাশিয়াকে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ডের টিকিট কাটেন তিনি।

রাশিয়ান আনাসতাশিয়া এখন ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বর্ণিল সময় পার করছেন। নারী এককে তার র‌্যাংকিং ১১। যেখানে সোরানার অবস্থান ৩৮। তিনিই কিনা হারিয়ে ৬-৩, ২-৬, ৬-২ গেমে হারিয়ে বিদায় করলেন ডজনখানের ট্রফিজয়ী আনাসতাশিয়াকে। যদিও প্রথম সেটে হারার পর ঘুরে দাঁড়ান এই প্রতিযোগিতায় তিনবার কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা আনাসতাশিয়া। তৃতীয় সেটে আবার খেই হারান তিনি। তাতেই কাটা পড়ে রুশ তারকার স্বপ্ন।

চার বছর বয়সে মায়ের কাছ থেকে টেনিসে হাতেখড়ি সোরানার। ছোট থেকেই টেনিস কিংবদন্তি স্টেফি গ্রাফকে আইডল হিসেবে মানতেন। স্বপ্ন ছিল, বড় হয়ে তার মতো না হোক, কিছুটা হলেও কোর্টে শাসন করা। কিন্তু সেই স্বাদ পূরণ হলো কই। লম্বা ক্যারিয়ারে বহুবার কোর্টে নেমেছেন আশার র‌্যাকেট হাতে। কিন্তু এখন পর্যন্ত একবারও শেষ প্রান্তে পা রাখা হয়নি তার। যাও একবার কোয়ার্টার ফাইনাল অবধি যান তিনি, সেটাও আর এগোয়নি। এবার যদি সেই ফাড়া কাটানো যায়। চতুর্থ রাউন্ডে উঠে হয়তো তেমন কিছুই চিন্তা করছেন। যদিও তার বাধা মোটেও সহজ নয়। চতুর্থ রাউন্ডে তাকে মোকাবিলা করতে হবে দারুণ ছন্দে থাকা পোলিশ তারকা ইগা সোয়েটাককে। ২০২০ সালে যিনি কিনা ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতেছিলেন।

মন্তব্য করুন