ড্রাগন সোয়েটারের লেনদেনে নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহার

প্রকাশ: ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের ১১ কার্যদিবস পর তালিকাভুক্ত ড্রাগন সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং মিলসের শেয়ার লেনদেনের ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহার করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। আগামী রোববার থেকে ফের স্বাভাবিক লেনদেন চক্রে (টি+২) কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন শুরু হবে।

অস্বাভাবিক লেনদেন ও দরবৃদ্ধির ধারার প্রেক্ষাপটে গত ১৬ আগস্ট অন্য চার কোম্পানির সঙ্গে এক আদেশে ড্রাগন সোয়েটারের শেয়ার স্বাভাবিক লেনদেন বাজার থেকে স্পটে লেনদেনের আদেশ দিয়েছিল কমিশন। এ নির্দেশ কার্যকর হয় গত ১৯ আগষ্ট থেকে। গতকাল বৃহস্পতিবার তা প্রত্যাহার করে বিএসইসি।

জানতে চাইলে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সাইফুর রহমান জানান, অল্প সময়ে কোম্পানির শেয়ারদরে ব্যাপক উত্থানের কারণে এ কোম্পানিতে বিনিয়োগের আগে আগ্রহীদের সতর্ক করতে স্পটে মার্কেটে পাঠানো হয়েছিল। নিয়ন্ত্রণ আরোপের পর কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন ও দরের ওঠানামা স্বাভাবিক ও সন্তোষজনক পর্যায়ে এসেছে বলে কমিশন মনে করে। এ কারণে নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

নিয়ন্ত্রণ আরোপের ফলে গতকাল পর্যন্ত সর্বশেষ ১১ কার্যদিবসে ড্রাগন সোয়েটারের শেয়ার স্পটে কেনাবেচা হয়। এ কারণে আগ্রহী বিনিয়োগকারীদের প্রতিদিনই নগদ মূল্যে শেয়ার কেনাবেচা করতে হয়েছে। চাইলে অন্য শেয়ার বিক্রি করে ওই মূল্যে এ শেয়ার কেনার (নেটিং) করার সুযোগও ছিল না। নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহারের ফলে ফের একই সঙ্গে নগদ মূল্যে বা নেটিং প্রক্রিয়ায় এ শেয়ারে বিনিয়োগ করা যাবে।

নিয়ন্ত্রণ আরোপের আগে গত ১৬ আগস্ট শেয়ারটি ৩৮ টাকার বেশিতে কেনাবেচা হচ্ছিল। এরপর টানা কয়েক দিনের দরপতনে শেয়ারটি ৬ টাকার ওপর দর হারায়। গতকাল লেনদেনের এক পর্যায়ে তা ৩১ টাকা ৬০ পয়সায় নেমেছিল। তবে গতকাল লেনদেনের ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহারের আভাস পেয়েই শেয়ারটির দর ও লেনদেন বাড়তে থাকে, যা লেনদেনের শেষ পর্যন্ত অব্যাহত ছিল বলে অনেকের ধারণা।

বাজার সংশ্নিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গতকাল দিনের লেনদেন শেষে কমিশন আনুষ্ঠানিকভাবে এ তথ্য প্রকাশ করলেও লেনদেন চলাকালীনই এ তথ্য পেয়ে যায় কিছু বিনিয়োগকারী। এ কারণে অনেকেই শেয়ারটি কিনেছেন। তাতে শেয়ারটির দর ও লেনদেনও উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বেড়েছে। সূত্র আরও জানায়, গতকাল আনুষ্ঠানিকভাবে নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহার হলেও গত কিছুদিন ধরে এমন সিদ্ধান্ত আসার বিষয়ে আভাস পাওয়া গেছে।

ডিএসইর লেনদেন পর্যালোচনায় দেখা যায়, গতকাল এ বাজারে ড্রাগন সোয়েটারের লেনদেন শুরু হয়েছিল ৩২ টাকা ৬০ পয়সা দরে। দুপুর পৌনে ১টায় শেয়ারটির দর ১ টাকা কমে ৩১ টাকা ৬০ পয়সায় নামে। এর পরই দর বাড়তে শুরু করে। শেষ পর্যন্ত ওই ধারা অব্যাহত থাকায় আগের অবস্থান থেকে ২ টাকা ২০ পয়সা বেড়ে ৩৩ টাকা ৮০ পয়সায় কেনাবেচা হয়।

তাছাড়া গতকালের লেনদেনের প্রথম সোয়া দুই ঘণ্টায় শেয়ার লেনদেনের গতি ছিল কম। লেনদেনের পুরো সময়ে ড্রাগন সোয়েটারের ৭ লাখ ৮৭ হাজার ৮৯৭টি শেয়ার মোট ২ কোটি ৫৮ লাখ টাকায় কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দুপুর ১২টার আগে বড় অঙ্কের কয়েকটি লেনদেন হয়েছে। মূলত বিপুল অঙ্কের শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে লেনদেনের শেষ ঘণ্টায়। এ সময় কেনাবেচা হয় প্রায় ৩ লাখ ৬৮ হাজার শেয়ার, যা মোট লেনদেনের প্রায় ৪৭ শতাংশ।

সাইফুর রহমান আরও জানান, শেয়ারটির লেনদেনের ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহার করে নেওয়া হলেও এর শেয়ার কেনাবেচার ওপর স্বাভাবিক নজরদারি অব্যাহত থাকবে। যদি আবারও অস্বাভাবিক ধারা দেখা যায়, তখনও কমিশনের এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ থাকবে।

গত জুনের মাঝামাঝি সময় থেকে ড্রাগন সোয়েটারের অস্বাভাবিক লেনদেনের ধারা শুরু হয়। গত ১৮ জুন শেয়ারটি ১৭ টাকা দরে কেনাবেচা হয়। এর মাত্র দেড় মাসের মধ্যে শেয়ারটির দর তিনগুণ বেড়ে ৫১ টাকা ছাড়ায়। এ ছাড়া দৈনিক গড়ে ৪ লাখ কেনাবেচা হওয়া শেয়ারের গড় লেনদেন ৩০ লাখ ছাড়িয়ে যায়। এমন প্রেক্ষাপটে গত ১৬ আগস্ট কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেনের নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছিল কমিশন।

অন্য যে চার কোম্পানির ক্ষেত্রে এমন নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল, সেগুলো হলো- মুন্নু সিরামিক, কেঅ্যান্ডকিউ, আজিজ পাইপস এবং স্টাইল ক্রাফট। কমিশন জানিয়েছে, রোববার থেকে ড্রাগনের লেনদেন সাধারণ মার্কেটে ফিরলেও এ চার কোম্পানির লেনদেন স্পট মার্কেটেই চলবে।





বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণে ইচ্ছুক ইয়াবাকারবারিরা এখন কক্সবাজারে পুলিশ হেফাজতে এক ধরনের ...

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

চলতি বছর বিশ্বের যেসব দেশে ৭ শতাংশ বা এর বেশি ...

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

কামারপাড়া। ভেবেছিলাম পাড়ায় ঢুকতেই হাঁপর আর লোহা পেটানোর শব্দ শোনা ...

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

'দশে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাহি লাজ'- এ প্রবাদটিকে ...

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

গঠনতন্ত্রের 'সামান্য বাধা'য় দেয়াল উঠেছে যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ ...

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমে বিকশিত হচ্ছে প্রকাশনা শিল্প। সেইসঙ্গে প্রকাশকের সংখ্যাও বাড়ছে প্রতিবছর। ...

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

বগুড়ায় শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হলেও দাম পাচ্ছেন না চাষিরা। ...

চট্টগ্রাম বন্দরের ৪ কোটি টাকাই পানিতে

চট্টগ্রাম বন্দরের ৪ কোটি টাকাই পানিতে

সাগরে ভাসমান কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ অনভিজ্ঞ প্রতিষ্ঠানকে ...