মালিকপক্ষের ৩০% শেয়ার না থাকলে ঋণ নয়

প্রকাশ: ২৩ মে ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

তালিকাভুক্ত কোম্পানিতে উদ্যোক্তা-পরিচালকদের ৩০ শতাংশ শেয়ার না থাকলে ওই কোম্পানি যাতে ব্যাংক ঋণ না পায়, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বাংলাদেশ ব্যাংককে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেবে দেশের শেয়ারবাজারের প্রধান অংশীদাররা। এ ছাড়া কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকদের যারা বিনা ঘোষণায় শেয়ার বিক্রি করেছেন এবং আইন অনুযায়ী সরকারকে কর দেননি, তাদের তালিকা করবে দুই স্টক এক্সচেঞ্জ। ওই তালিকা নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির কাছে পাঠিয়ে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করবে তারা।

গতকাল বুধবার ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ, ডিএসইর ব্রোকারদের সংগঠন ডিবিএ এবং মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর সংগঠন বিএমবিএর বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে। বৈঠকে ডিএসই ও সিএসইর পরিচালক এবং ডিবিএ এবং বিএমবিএর সভাপতিসহ অন্য নেতারা অংশ নেন। ডিএসই কার্যালয়ে দুপুরে স্টেকহোল্ডারদের এ বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের আলোচনার বিষয়ে জানান ডিএসইর পরিচালক ও সাবেক সভাপতি রকিবুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডিএসইর পরিচালক মিনহাজ মান্নান ইমন এবং ডিবিএ সভাপতি শাকিল রিজভী।

রকিবুর রহমান বলেন, এখন থেকে কোনো উদ্যোক্তা-পরিচালক বিনা ঘোষণায় শেয়ার বিক্রি করতে পারবেন না; সে পথ বন্ধ করার ব্যবস্থা হয়েছে। কিন্তু যারা বেআইনিভাবে শেয়ার বিক্রি করেছেন, তাদের জবাবদিহির আওতায় আনতে হবে। যেসব কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকদের সম্মিলিতভাবে ৩০ শতাংশের কম শেয়ার রয়েছে, তাদের বিষয়ে কঠোর অবস্থানে গেছে বিএসইসি। তারা কেউ শেয়ার বিক্রি বা হস্তান্তর করতে পারবেন না। এমনকি শেয়ার লিয়েন (বন্ধক) রেখে ঋণও নিতে পারবেন না। কোম্পানি বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করতে পারবে না।

রকিবুর রহমান জানান, এসব কোম্পানি অনেক আইন-কানুনই পরিপালন করছে না। এ অবস্থায় কোনো ব্যাংক ঋণ দিলে তার আদায়ও অনিশ্চিত হয়ে পড়ার শঙ্কা আছে। তাই কেন্দ্রীয় ব্যাংককে অনুরোধ করা হবে, যাতে কোনো ব্যাংক এসব কোম্পানিকে ঋণ না দেয় বা এদের বিষয়ে সতর্ক থাকে। এদিকে ব্রোকারেজ হাউসগুলোর নতুন শাখা বা বুথ স্থাপনে ছাড় দিতে নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে পুনরায় অনুরোধ জানানোর চিঠি দেবে ডিবিএ। শাকিল রিজভী জানান, ডিএসইর প্রধান কার্যালয় শিগগিরই রাজধানীর নিকুঞ্জে স্থানান্তর হবে। ফলে অনেক ব্রোকারেজ হাউসই প্রধান কার্যালয় মতিঝিল থেকে নিকুঞ্জ ডিএসই টাওয়ারে নিয়ে যাবে। এ অবস্থায় মতিঝিলের বর্তমানের প্রধান কার্যালয়কে শাখা অফিস হিসেবে অথবা প্রধান কার্যালয়ের বর্ধিত কার্যালয় হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার আবেদন করা হবে।

বাজার পরিস্থিতি :পরপর দু'দিন দরপতনের পর গতকাল বুধবার দেশের দুই শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছে। ডিএসইতে ১৯১ শেয়ারের দরবৃদ্ধির বিপরীতে ৯২টির দর কমেছে। অপরিবর্তিত ছিল ৫৯টির দর। এতে ডিএসইএক্স ১৪ পয়েন্ট বেড়ে প্রায় ৫২৫১ পয়েন্টে উঠেছে। সিএসইতে ১১৯ শেয়ার ও ফান্ডের দরবৃদ্ধির বিপরীতে ৭২টির দর কমেছে। অপরিবর্তিত ছিল ৩৬টির দর।

শেয়ারদর বাড়লেও দুই বাজারের লেনদেন কমেছে। ডিএসইর লেনদেন ৬১ কোটি টাকার বেশি কমে ২৯০ কোটি ৫৪ লাখ টাকায় নেমেছে। সিএসইর লেনদেন ৩৬ কোটি ৪ লাখ টাকা থেকে কমে ১৪ কোটি ৭৫ লাখ টাকায় নেমেছে।