বেশিরভাগের দর কমলেও সূচক অপরিবর্তিত

প্রকাশ: ২০ নভেম্বর ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

শেয়ারদরের বেশ ওঠানামার মধ্যেও প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক চলতি সপ্তাহে এখন পর্যন্ত অনেকটা স্থির আছে। সপ্তাহের প্রথম তিন কার্যদিবসে ডিএসইএক্স সূচক মাত্র ১২ পয়েন্ট বেড়েছে। এর মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর কমলেও সূচক ছিল প্রায় অপরিবর্তিত। গত সপ্তাহের শেষ তিন কার্যদিবসে সূচকটি টানা ৭১ পয়েন্টের বেশি হারিয়েছিল।

গতকাল দিনশেষে ডিএসইএক্স মাত্র শূন্য দশমিক ৩৫ পয়েন্ট বেড়ে ৪৭২২ দশমিক ৩৭ পয়েন্টে উঠেছে। যদিও ডিএসইতে গতকাল ১২৪ কোম্পানির শেয়ারদর বৃদ্ধির বিপরীতে ১৭৪টির দর কমেছে। দ্বিতীয় শেয়ারবাজার সিএসইতেও প্রায় একই চিত্র দেখা গেছে। ৮৩ কোম্পানির শেয়ার ও ফান্ডের দর বেড়েছে, কমেছে ১২৩টির দর। এর পরও এ বাজারের প্রধান সূচক সিএসইএক্স পৌনে ৭ পয়েন্ট বেড়েছে। বাজার সংশ্নিষ্টরা এ অবস্থাকে 'মন্দের ভালো' হিসেবে দেখছেন। তারা জানান, এখানে সূচকের ওঠানামাকে বিনিয়োগকারীরা বড় করে দেখেন। সূচকে উত্থান না হলেও গতকাল পতন না হওয়ায় খুশি বেশিরভাগ বিনিয়োগকারী।

লভ্যাংশ-সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট শেষে লেনদেন শুরুর দিনে গতকাল ১৩ কোম্পানির মধ্যে ১২টিরই দর কমেছে বা সমন্বয় হয়েছে। এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম শুধু স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক। এ কোম্পানির শেয়ারের দর রেকর্ড ডেট শেষে ৪২ টাকা বা সাড়ে ৭ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৬০২ টাকা ৫০ পয়সায় কেনাবেচা হয়েছে। যদিও কোম্পানিটি গত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের মাত্র ৫ শতাংশ লভ্যাংশ দিতে যাচ্ছে। বাকি ১২ কোম্পানির বেশিরভাগেরই দর সংশোধন হয়েছে। এর মধ্যে জুট স্পিনার্স, ইউনিক হোটেলের শেয়ারদর সামান্য কমলেও ৫ থেকে ১৫ শতাংশ পর্যন্ত দর কমেছে প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, দেশ গার্মেন্ট, সাইফ পাওয়ারটেক, এমআই সিমেন্ট, ইন্ট্রাকো, আইসিবি, প্যাসিফিক ডেনিম, বারাকা পাওয়ার, তিতাস গ্যাস ও গোল্ডেন হারভেস্ট এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের।