চার দিনেও বরাদ্দের চাল পেঁৗছায়নি দুর্গতদের হাতে

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৭

ওসমানীনগর (সিলেট) প্রতিনিধি

সিলেটের ওসমানীনগরে বন্যাকবলিতদের জন্য সরকারিভাবে গত মঙ্গলবার ২৪ টন চাল ও নগদ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু গতকাল শনিবার পর্যন্ত বরাদ্দের সেই চাল পেঁৗছায়নি দুর্গতদের হাতে।
এমনকি এখন পর্যন্ত বরাদ্দের চাল উত্তোলনের জন্য কোনো কাগজপত্রও পাননি চেয়ারম্যানরা। গুদামে পর্যাপ্ত চাল না থাকার কারণে ছাড় দিতে কিছুটা দেরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউএনও মো. মনিরুজ্জামান। তবে আজ ইউনিয়ন পরিষদের অনুকূলে চালগুলো ছাড় দেওয়া হবে বলেও
জানান তিনি।
দ্বিতীয় ধাপের বন্যায় উপজেলার ৮ ইউনিয়নের ৫ সহস্রাধিক পরিবার প্রায় ৩ সপ্তাহ ধরে মানবেতর জীবনযাপন করছে। গত মঙ্গলবার ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া সিলেটের বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শন করে ৮ উপজেলার জন্য ৫০০ টন চাল ও নগদ ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেন। এরপর ওসমানীনগর উপজেলার জন্য ২৪ টন চাল ও নগদ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু আজ পর্যন্ত বরাদ্দ পাওয়া চালগুলো দুর্গতদের হাতে পেঁৗছেনি।
জানতে চাইলে উছমানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ময়নুল আজাদ ফারুক বলেন, দ্বিতীয় ধাপের বন্যার পর ১ টন চাল ও সামান্য গম পেয়েছিলাম। নতুন করে আর কোনো বরাদ্দ পাইনি।
উমরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম কিবরীয়াহ বলেন, আমার ইউনিয়নের বন্যাকবলিতদের জন্য নতুন করে ৩ টন চাল বরাদ্দের কথা শুনেছি। তবে এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো চিঠি পাইনি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, খাদ্যগুদামের পর্যাপ্ত চাল না থাকায় তা ছাড় দেওয়া যায়নি। তবে গতকাল (শুক্রবার) গুদামে চাল ঢুকেছে। আশা করি, আগামীকাল (রোববার) চেয়ারম্যানরা চাল উত্তোলন করতে পারবেন। বর্তমানে বেসরকারিভাবে পর্যাপ্ত ত্রাণসামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।