বিশ্বনাথে আসামি ছিনতাই পুলিশসহ আহত ৩৫

প্রকাশ: ১২ জানুয়ারি ২০১৯

wek^bv_ (wm‡jU) cÖwZwbwa

বিশ্বনাথে পুলিশের কাছ থেকে হাতকড়া ও জ্যাকেটসহ সুহেল আহমদ (৩০) নামে এক আসামিকে ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বৈরাগী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এতে থানা পুলিশের এসআই সবুজ কুমার নাইডু ও কনস্টেবল সুমন আহমদসহ অন্তত ৩৫ ব্যক্তি আহত হন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে রহমাননগরের কয়ছর আহমদ ও তার ভাই জাকির আহমদকে গতকাল শুক্রবার ভোরে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

থানা পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার নওধার পূর্বপাড়া গ্রামে ছাবাল শাহের মাজারে অসামাজিক কর্মকাণ্ড বন্ধ করেত ছাবাল শাহের মেয়ে তাছলিমা বেগম গ্রামের করিম বক্সের ছেলে সুহেলের নামে থানায় মামলা করেন। মামলার পর রাত আটটার দিকে পুলিশ বৈরাগী বাজার থেকে সুহেলকে গ্রেফতার করে। সুহেল গ্রেফতারের খবর শুনে তার চার ভাইসহ ১৫-২০ মাদকসেবী পুলিশের ওপর হামলা করে পুলিশের জ্যাকেট ও হাতকড়াসহ সুহেলকে ছিনিয়ে নেয়। এ সময় এসআই সবুজ কুমার নাইডু ও কনস্টেবল সুমন আহমদসহ অন্তত ৩৫ ব্যক্তি আহত হন। পরে পুলিশ এলোপাতাড়ি লাঠিচার্জ করলে প্রায় ৩০-৩৫ জন আহত হন। এতে দুই পুলিশ সদস্যসহ কয়েকজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অন্যরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেন। এ ঘটনায় রাতেই সুহেলসহ ৩০ জনের নামে মামলা করে পুলিশ।

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, সুহেলকে গ্রেফতারের পর থানায় নিয়ে যাওয়ার সময় ২০-২৫ জন পুলিশের ওপর হামলা করে হাতকড়া ও জ্যাকেটসহ তাকে ছিনিয়ে নেয়।

থানার ওসি শামছুদ্দোহা বলেন, সুহেলকে গ্রেফতারের পর তার কয়েকজন অনুসারী হামলা করে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। তবে লাঠিচার্জ নয়, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ধমক দেওয়া হয়েছে। জ্যাকেট পাওয়ার কথা স্বীকার করলেও হাতকড়া খোয়া যাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন তিনি।