লীলা নাগের ৪৯তম মৃত্যুবার্ষিকী

পৈতৃক বাড়িতে জাদুঘরের দাবি এলাকাবাসীর

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০১৯

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

রাজনগরের মহীয়সী নারী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ছাত্রী বিপ্লবী লীলা নাগের ৪৯তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তার পাঁচগাঁওয়ের পৈতৃক বাড়িটি দখলমুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। ১৯৭০ সালের ১১ জুন তিনি কলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাঁচগাঁও গণহত্যার পর স্থানীয় আলাউদ্দিন চৌধুরী বিপ্লবী নারীর বাড়িটি দখল করে নেয় বলে অভিযোগ রয়েছে। ফসলি জমি, বাড়িসহ তার ১৭ একর ভূমি বেদখল হয়েছে বলে জানা গেছে। লীলা নাগ পরিবারের বাড়ির বৈঠকখানাটি জরাজীর্ণ অবস্থায় এখনও স্মৃতিচিহ্ন বহন করে চলেছে। যে কোনো সময় শেষ স্মৃতিচিহ্ন বৈঠকখানাটিও ভেঙে যেতে পারে।

লীলা নাগ স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল আহমদ জানান, লীলা নাগের স্মৃতিবিজড়িত রাজনগর উপজেলার পাঁচগাঁও ইউনিয়নের পাঁচগাঁও গ্রামের পৈতৃক বাড়িটি উদ্ধারে লীলা নাগ স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে বিভিন্ন সময়ে সরকারের ঊর্ধ্বতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষণে একাধিকবার আবেদন করা হলেও কোনো ফল আসেনি। প্রয়াত আলাউদ্দিন পরিবারের দখলমুক্ত করে এ বাড়িতে সরকারের সংশ্নিষ্ট মহলের তত্ত্বাবধানে লীলা নাগ জাদুঘর গড়ে তোলার জোর দাবি জানান তিনি। লীলা নাগ স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে গত মঙ্গলবার ঘরোয়া পরিবেশে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলাউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে আব্দুল মুনিম চৌধুরী জানান, বাড়িটি তারা জবরদখল করেননি। ক্রয়সূত্রে তারা মালিক। এই বাড়ি নিয়ে আদালতে মামলা চলছে।

আলাউদ্দিন চৌধুরীর পরিবার এই বাড়িটি রক্ষায় মৌলভীবাজার জেলা জজ আদালতে মামলা করে রায় বিপক্ষে গেলে উচ্চ আদালতে আপিল করে।