প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে বহিরাগতদের বাতিল দাবি

জগন্নাথপুর

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০১৯      

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

জগন্নাথপুর উপজেলায় প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক পদে ২০১৮ সালে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ভুয়া নাগরিক সার্টিফিকেট সংগ্রহকারী বহিরাগতের নাগরিক সনদপত্র বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এ ছাড়া স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে জগন্নাথপুরের ইউএনও মাহফুজুল আলম মাসুমের কাছে। বুধবার সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে স্থানীয় পৌর পয়েন্টে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে জগন্নাথপুরের স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক সমাজ, সাংবাদিক, অভিভাবকসহ সর্বস্তরের তিন শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

শিক্ষক আলমগীর হোসেনের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন জগন্নাথপুর পৌরসভার কাউন্সিলর আবাব মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাজি আব্দুল জব্বার, শিক্ষক রমেন্দ্র গোপ, বিজয় কৃষ্ণ ক্ষত্রিয়, রূপক কান্তি দেব, গোপাল চন্দ্র, শাহজাহান সিরাজী, নুরুল হক, অভিভাবকদের পক্ষে সাজ্জাদুর রহমান, কুতুব উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাফরোজ ইসলাম প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, এবার জগন্নাথপুর উপজেলা থেকে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক পদে ৫০১ প্রার্থী লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। এর মধ্যে অধিকাংশ প্রার্থী অন্য জেলার (বহিরাগত)। তারা স্থানীয় নাগরিক সেজে প্রতারণার মাধ্যমে ভুয়া নাগরিক সনদ নিয়ে চাকরি নিতে তৎপর হয়ে উঠেছেন। এতে করে স্থানীয়রা নিজেদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।