ছাতক-সিলেট সড়কে বেইলি ব্রিজ ভেঙে আবারও যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। বুধবার শেষ রাতে সড়কের মাধবপুর এলাকায় অতিরিক্ত মাল বহনকারী একটি ট্রাক ব্রিজ পার হওয়ার সময় এটি ভেঙে যায়। ফলে বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল ব্রিজের দু'পাশে কয়েকশ যাত্রীবাহী বাসসহ বিভিন্ন যানবাহন আটকা পড়েছিল।

ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন এই পথে যাতায়াতকারী কয়েক হাজার যাত্রী। এর আগে গত সোমবার রাতেও একবার বেইলি ব্রিজটি ভেঙে যায়। প্রায় ১২ ঘণ্টা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার পর মেরামত কাজ শেষে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ছাতক-গোবিন্দগঞ্জ-সিলেট সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

জানা যায়, ছাতক-সিলেট সড়কের বিভিন্ন স্থানে সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতায় একযোগে ৬টি নতুন ব্রিজ নির্মাণের কাজ চলছে। বুধবার শেষ রাতে অতিরিক্ত মালবোঝাই একটি ট্রাক ব্রিজ পার হওয়ার সময় মাধবপুরের অস্থায়ী বেইলি ব্রিজের সাপোর্ট অ্যাঙ্গেল খসে পড়ে ব্রিজের মাঝামাঝি অংশ ধসে যায়। এ সময় ব্রিজের ওপর কোনো যানবাহন না থাকায় বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। আবারও মাধবপুর ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় সিলেটসহ রাজধানীর সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৪ মাস আগে পুরোনো ব্রিজ ভেঙে নতুন ব্রিজের কাজ শুরু করেন ঠিকাদার। এরপর থেকে নিয়মিত এসব অস্থায়ী বেইলি ব্রিজ দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। কিন্তু অধিকাংশ যানবাহন শর্তাবলি মানছে না বলেই বারবার এসব ব্রিজ ভেঙে পড়ে জনসাধারণের ভোগান্তি বাড়ছে।

ছাতক সড়ক ও জনপথ বিভাগ এসডিও কাজী নজরুল ইসলাম বলেন, প্রতিটি বেইলি ব্রিজের মুখে সড়ক ও জনপথ বিভাগের '১০ টনের বেশি মালপত্র নিয়ে যাতায়াত নিষিদ্ধ' কথাটি লেখা থাকলেও ভারী যানবাহনগুলো ৩৫-৪০ টন মাল নিয়ে বেইলি ব্রিজ অতিক্রম করায় বারবার এ ধরনের পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে। মেরামতের কাজ চলছে। আশা করি, দ্রুত সময়ের মধ্যে সমস্যার সমাধান হবে।

মন্তব্য করুন