সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী লুৎফুর রহমানসহ তার পরিবারের উদ্যোগে অবহেলিত গ্রামীণ রাস্তাঘাট মেরামত ও মাটি ভরাট কাজ চলছে। বিশ্বব্যাপী করোনার কঠিন সময়ও গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর দুঃখ-কষ্টের কথা চিন্তা করে প্রবাসী লুৎফুর রহমানের পরিবারের এই মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী। তিনি উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের রাজারগাঁও গ্রামের বাসিন্দা ও সাবেক ইউপি সদস্য সামছুর রহমান সামছুর ছোট ভাই। গ্রামীণ অবকাঠামোগত এ উন্নয়ন কাজ শেষ হলে ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের লোকজন উপকৃত হবেন।

সম্প্রতি কয়েক দফা বন্যা ও পাহাড়ি ঢলে গ্রামীণ রাস্তাঘাটগুলোর বেহাল দশা হয়েছে। অনেক রাস্তা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় এ অঞ্চলের সাধারণ মানুষ গুরুতর ভোগান্তিতে পড়েছেন। এসব অবহেলিত কয়েকটি গ্রামের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার উন্নয়নের লক্ষ্যে এরই মধ্যে বড় একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে ওই প্রবাসী পরিবার। বছরের শুরু থেকে উন্নয়নমূলক এ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে ইউনিয়নের বারকাহন জামে মসজিদ থেকে চরবাড়া গ্রামের সৈয়দ আলীর বাড়ি পর্যন্ত ২ দশমিক ৭ কিলোমিটার রাস্তায় মাটি ভরাট কাজ, নোয়ারাই ইউনিয়নের চৌমুহনী থেকে চানপুর বাজার পর্যন্ত প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তায় মাটি ভরাট কাজ, কচুদাইড় জামে মসজিদের রাস্তা সংস্কার, স্কুুলের রাস্তা, কচুদাইড় স্কুলের ভিটেমাটি ভরাট কাজ, বাঁশটিলা থেকে মাগুরা নদীর পাড় পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তার সংস্কারকাজ, কচুদাইড় মূল রাস্তা থেকে মোহাম্মদ আলীর বাড়ি পর্যন্ত ৬০০ মিটার রাস্তা সংস্কার, রাজারগাঁও পাথাইরা পাড়ার সুরুজ মিয়ার বাড়ি থেকে নওসর মিয়ার বাড়ি পর্যন্ত ৮০০ মিটার রাস্তার সংস্কারসহ নোয়ারাই ইউনিয়নের একাধিক রাস্তার মেরামত এবং নির্মাণকাজ।

মন্তব্য করুন