সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মাদ্রাসাছাত্রীকে হত্যার অভিযোগে ঘাতক চাচাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। তার নাম বদরুল ইসলাম। সে উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর গোলায়গাঁও গ্রামের মৃত জিতু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সৈয়দপুর গোয়ালগাঁও গ্রামের শয়ফুল ইসলামের মেয়ে সানজিদা বেগম (১৬) প্রতিদিনের মতো গত মঙ্গলবার রাতের খাওয়া শেষে নিজ শয়নকক্ষে ঘুমাতে যায়। রাতের কোনো এক সময় মেয়েটির চাচা রবিউল ইসলাম (৪০) সানজিদার ঘরে প্রবেশ করে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যায়। বুধবার ভোরে মেয়েটির নিথর দেহ নিজ ঘরের বিছানায় পড়ে থাকতে দেখেন পরিবারের লোকজন।

পরিবার জানায়, শয়ফুল ইসলামের চার ভাইয়ের এক ভাই যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন। প্রবাসী নিঃসন্তান হওয়ায় মেয়েটিকে তিনি নিজের মেয়ের মতো স্নেহ করতেন ও তার কাছে সংসারের ভরণপোষণের টাকা পাঠাতেন। এ নিয়ে রবিউলের সঙ্গে কিছু বিরোধ চলছিল। কিছুদিন আগে এ বিরোধের জেরে রবিউল স্ত্রী-সন্তান নিয়ে শ্বশুরবাড়ি চলে যায়। মঙ্গলবার বাড়ি ফিরে ঘটনা ঘটায়। রবিউলকে গতকাল জগন্নাথপুর পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

মন্তব্য করুন