জৈন্তাপুর উপজেলায় খাসি নেতার জুমসহ তিনটি স্থানে অভিযান চালিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তর। সে সময় পাহাড় ও টিলা কেটে পাথর তোলার দায়ে ১১টি শ্যালো ও পাম্প মেশিন ধ্বংস করা হয়েছে। পাশাপাশি স্টোন ক্রাশার মিলে অভিযান চালিয়ে দু'জনকে আটক ও এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। গতকাল বুধবার উপজেলার আলুবাগান, মোকামপুঞ্জি সুপারিজুম ও বাংলাবাজার এলাকার ক্রাশার মিলে এ অভিযান চালানো হয়।

সম্প্রতি সিলেটে ধারাবাহিক ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল হিসেবে জৈন্তাপুর শনাক্ত হওয়ায় সেখানকার পরিবেশের ওপর গোয়েন্দা নজরদারি শুরু হয়। পাহাড় ও টিলা কাটা এবং পাথর উত্তোলন বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল অভিযানে নামে পরিবেশ অধিদপ্তর। অভিযানকালে মোকামপুঞ্জি খাসি অধিবাসী নেতা হেনরী লামিন, ভিভেনসন খাসি ও মিম খাসির সুপারিজুমে মাটি খুঁড়ে পাথর তোলার কাজে ব্যবহূত পাঁচটি শ্যালো মেশিন ও দুটি পাম্প মেশিন ধ্বংস করা হয়। পাশাপাশি বাংলাবাজার স্কুলের পাশে নদীর ধারে অভিযান পরিচালনা করে চারটি শ্যালো মেশিন ধ্বংস করা হয়। এ ছাড়া বাংলাবাজার এলাকায় অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করে ক্রাশ করার অপরাধে দু'জনকে আটক করা হয়।

বিষয় : অভিযান

মন্তব্য করুন