দোয়ারাবাজার-লক্ষ্মীপুর সড়ক। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় একসময়ের পিচ ঢালা সড়ক এখন কাঁচা রাস্তায় পরিণত হয়েছে। ফলে বড় কোনো যান চলাচল করতে পারছে না এ সড়কে। একটু বৃষ্টি হলেই পুরো রাস্তা কর্দমাক্ত হয়ে পড়ে। তখন হেঁটে চলাও কঠিন হয়ে যায়। সড়কটির কারণে দীর্ঘদিন ধরেই ভোগান্তি পোহাচ্ছে এলাকাবাসী।

বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় এ সড়ক দিয়ে যাতায়াতের ক্ষেত্রে উপজেলার লক্ষ্মীপুর, সুরমা ও বোগলা ইউনিয়নের অর্ধশতাধিক গ্রামের লাখো মানুষ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। সড়কটি মেরামতের দাবিতে ইতোমধ্যে তিন ইউনিয়নের লোকজন মানববন্ধনও করেছেন, কিন্তু কোনো কাজ হচ্ছে না।

সরেজমিন দেখা গেছে, দোয়ারাবাজার উপজেলা সদর থেকে লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন পর্যন্ত পুরো সড়কটি যেন মরণ ফাঁদ। সড়কের শরীফপুর, শান্তিপুর-খৈয়াজুরি, গিরিশনগর, মহব্বতপুর, রাবারড্যাম, নোয়াপাড়া, জিরাগাঁও, লক্ষ্মীপুর এলাকা পর্যন্ত পুরোটাই খানাখন্দ ও কাদায় ভরা। প্রতিদিনই মালপত্র পরিবহনের ক্ষুদ্র গাড়িগুলোর চাকা সড়কে আটকা পড়ছে। সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মোটরসাইকেল উল্টে পড়ে আহত হচ্ছেন চালক ও যাত্রীরা।\হস্থানীয়রা জানান, এ রাস্তার কারণে স্থানীয় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা তাদের প্রতিষ্ঠানে যেতে প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে।\হসুরমা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশীদ বলেন, চলতি বছরের বর্ষা মৌসুমে কাজ করা হয়েছিল। উপজেলা প্রকৌশলী রাশেদুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে।

মন্তব্য করুন