মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ ও সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা, মধ্যনগরে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের মাঝে করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) প্রতিরোধে ফাইজারের টিকা প্রদান শুরু হয়েছে। এ সময় টিকা নিতে শিক্ষার্থীর উপচেপড়া ভিড় ছিল।

গতকাল শনিবার সকাল ৯টায় কমলগঞ্জ ডাকবাংলো প্রাঙ্গণে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে টিকা কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সাবেক চিফ হুইপ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক রফিকুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক, কমলগঞ্জ সরকারি গণমহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ কামরুজ্জামান মিয়া, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া প্রমুখ।

টিকা গ্রহণ করে শিক্ষার্থী আঁখি সুলতানা বলেন, 'টিকা নিয়ে অনেক চিন্তিত ছিলাম। পরীক্ষার আগে টিকা নিতে পেরে খুব ভালো লাগছে।'

কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এম মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া বলেন, সব মিলিয়ে প্রায় আড়াই হাজার এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে। শনিবার কমলগঞ্জ সরকারি গণমহাবিদ্যালয় ও শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়।

এদিকে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা ও মধ্যনগর উপজেলার ৬৮১ পরীক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হয়েছে। শনিবার সকালে ধর্মপাশা উপজেলা শিল্পকলা একাডেমিতে স্থাপিত টিকাদান কেন্দ্রে টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ধর্মপাশা ইউএনও মুনতাসির হাসান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেদুয়ানুল হালিম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এমরান হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ প্রমুখ।

ধর্মপাশা সরকারি কলেজ, বাদশাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ, হাজী আব্দুল হাফেজ স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মধ্যনগর বিপি স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বংশীকুণ্ডা কলেজ ও লায়েছ ভূঁইয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৯৩৬ পরীক্ষার্থীর মধ্যে শনিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত ৬৮১ জনকে টিকা দেওয়া হয়।

মন্তব্য করুন