হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার সাতকাপন ইউনিয়নের মধুপুরের পাশে বনবিট থেকে সুমন মুন্ডা নামের এক কিশোরের অর্ধগলিত ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুর ১টার দিকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সুমন মধুপুর বাগানের পরিমল মুন্ডার ছেলে। গত ২৩ ডিসেম্বর নিখোঁজ হয় সে।

পুলিশ জানায়, ওইদিন ফেসবুকে বুধু মুন্ডার বোন মুক্তার ছবি পোস্ট করে সুমন। এই নিয়ে সুমনের সঙ্গে প্রতিবেশী সুনীল মুন্ডার ছেলে বুধু মুন্ডার বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে বুধু মুন্ডা উত্তেজিত হয়ে সুমনকে চড়থাপ্পড় মারতে শুরু করলে পার্শ্ববর্তী লোকজন তাদের থামিয়ে দেন। পরে দু'জন দু'দিকে চলে যায়। এরপর থেকেই সুমন রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনার ২২ দিন পর পুটিজুরি বনবিটের ফাস্ট টিলা নামক স্থান থেকে সুমনের অর্ধগলিত ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত সুমন মুন্ডার মা বাণী মুন্ডা বলেন, 'গত ২৩ ডিসেম্বর আমার ছেলের সঙ্গে বুধু মুন্ডার ঝগড়ার ঘটনাটি জানতে পেরে আমি বাগান সভাপতিকে বিষয়টি জানাই। বাগান সভাপতি আমাকে বলেন, তিনি বিষয়টি দেখবেন। তিনি আর কী দেখবেন, ওইদিন থেকেই আমার ছেলে বাড়িতে ফেরেনি। আজ আমার ছেলের লাশ পাওয়া গেছে। আমি আমার ছেলে হত্যার বিচার চাই।'

বাহুবল মডেল থানার ওসি রকিবুল ইসলাম খান বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। পুরো ঘটনাটি নিয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। তদন্তের পর ঘটনার মূল কারণ জানা যাবে।

মন্তব্য করুন