দুই পর্দার আসুস জেনবুক ডুয়ো প্রো

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯      

তুসিন আহমেদ

প্রযুক্তি দুনিয়াকে চমকে দিয়ে আসুস জেনবুক প্রো ডুয়ো মডেলের ল্যাপটপটি কয়েক মাস আগে উন্মোচন হলেও সম্প্রতি দেশের বাজারে এটি এসেছে। একটি নয়, ল্যাপটপ খুলে বসলেই চোখ চলে যাবে দুটি পর্দায়, আর দুটিই অত্যাধুনিক ফোরকে প্রযুক্তিসম্পন্ন। দুই পর্দায় একসঙ্গে করা যাবে নানা ধরনের কাজ। কন্টেন্ট, গ্রাফিক্স, মিউজিক, গেমিংসহ যারা মাল্টিটাস্কিং নিয়ে কাজ করেন, তাদের জন্য জেনবুকের নতুন এই সংস্করণ এসেছে চমক হয়ে।

ডিজাইন :ল্যাপটপটির ডিজাইন দেখতে বেশ প্রিমিয়াম। সিলেসস্টিয়াল ব্লু বা নীল রং ল্যাপটপটিতে বাড়তি মাত্রা যোগ করেছে। ল্যাপটপটি ওপেন করলে ডিসপ্লের ওপর ভর করে কিবোর্ড অংশটি একটু ওপরে উঠে যায়। সেখানে থ্রি ডিগ্রি স্পেস থাকে। ফলে টাইপিংয়ের ভালো ফিল পাওয়া যায় এবং এটি বাতাস বের হতে সাহায্য করে। ব্যাকলাইট কিবোর্ড থাকায় অন্ধকারেও টাইপ করতে অসুবিধা হবে না। কিবোর্ডের পাশে রয়েছে টাচবার। টাচবারের পাশে রয়েছে রাইট/লেফট বাটন। টাচবারের আকৃতি খুবই ছোট মনে হয়েছে। তবে স্বাভাবিক ইউজে তেমন অসুবিধা হবে না। টাচবারের আকৃতি একটু বড় হলে ভালো হতো। এ ছাড়া রাইট, লেফট বাটনগুলো না থাকলে আরও সুন্দর লাগত। ১৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে সমৃদ্ধ ডিভাইসটির বাঁ পাশে রয়েছে ইউএসবিসি, ইউএসবি ৩.১, এইচডিএমআই, চার্জিং পোর্ট। ডান পাশে রয়েছে মাইক্রোএসডি কার্ড রিডার, ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক এবং একটি ইউএসবডি ৩.১ পোর্ট। ডিসপ্লের ওপরে রয়েছে আইআর ওয়েব ক্যামেরা।

ডিসপ্লে :ডিভাইসটিতে রয়েছে ১৪ ইঞ্চি এলইডি ফুল এইচডি ডিসপ্লে, যার রেজুলেশন ১৯২০ ও ১০৮০ পিক্সেল। ৯০ শতাংশ স্ট্ক্রিন টু বডি রেশিও ও স্লিম বেজেল থাকায় ডিভাইসটিতে ভিডিও এক্সপেরিয়েন্স মন্দ নয়।

১৭৮ ডিগ্রি ওয়াইড এঙ্গেল সুবিধা রয়েছে এতে।

কিবোর্ডের ঠিক ওপরে রয়েছে ল্যাপটপটির আকর্ষণীয় ফিচার ডুয়েল ১২.৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে। আসুস যার নাম দিয়েছে স্ট্ক্রিনপ্যাড প্লাস। মূল ডিসপ্লেটিতে টাচ সুবিধা না থাকলেও স্ট্ক্রিনপ্যাড প্লাসে রয়েছে টাচ সুবিধা। এই বাড়তি ডিসপ্লেটির ব্রাইটনেস চাইলে বাড়ানো-কমানো যাবে। চাইলে তা কাস্টমাইজও করা যাবে। হ্যান্ডরাইটিং নামের সফটওয়্যারের সাহায্যে স্ট্ক্রিনপ্যাড প্লাসে লেখা ও ছবি আঁকা যাবে।



পারফরম্যান্স : সমকালের হাতে পাওয়া রিভিউ ইউনিট ল্যাপটপটির মডেল নাম্বার আসুস জেনবুক ডুয়ো ইউএক্স৪৮১এফএ। ডিভাইসটিতে রয়েছে ১.৮০ গিগাহার্টজ ১০ জেনারেশন ইন্টেল কোর আই সেভেন প্রসেসর। ১৬ গিগাবাইট র‌্যাম এবং ১ টেরাবাইট এসএসডি। গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে রয়েছে ২ গিগাবাইট এনভিডিয়া জিফোরস এমএক্স২৫০ জিপিইউ। মূলত প্রফেশনাল কাজে দারুণ পারফরম্যান্স দেবে এটি।

সাউন্ড :ল্যাপটপটিতে রয়েছে সনিক মাস্টার স্টোরি অডিও সিস্টেম, সঙ্গে রয়েছে সারাউন্ডিং সুবিধা। সাউন্ড কোয়ালিটি ভালো। ডে টু ডে ইউজ বা ল্যাপটপের সাউন্ড হিসেবে মন্দ

নয়।

ব্যাটারি :এতে রয়েছে ৪ সেল লিথিয়াম পরিমাণ ব্যাটারি।



আসুসের দাবি, স্কিনপ্যাড প্লাস যদি বন্ধ থাকে, তাহলে ২২.৪ ঘণ্টা ব্যাটারি ব্যাকআপ সুবিধা দিতে পারে ল্যাপটপটি। আর এটি চালু থাকা অবস্থায় ১৫.৭ ঘণ্টা ব্যাটারি ব্যাকআপ মিলবে। ৬৫ ওয়াট পাওয়ার অ্যাডাপ্টর রয়েছে এতে।

দাম :১ লাখ ২ হাজার টাকা। ল্যাপটপটির ই-কমার্স পার্টনার প্রিয়শপ দিচ্ছে ফ্রি ডেলিভারি সুবিধা, সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকার গিফট ভাউচার এবং ইএমআই সুবিধা। কেনার লিংক  www.priyoshop.com/asus