সাধ্যের মধ্যে স্মার্টফোন

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯     আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯

আসাদুজ্জামান

স্মার্টফোন বলতেই চোখে ভাসে নানা ব্র্যান্ডের দামি ঝকঝকে হ্যান্ডসেট। বাস্তবতা হচ্ছে, সাশ্রয়ী দামে সাধ্যের মধ্যেও মিলছে হরেকরকম স্মার্টফোন। এই নিয়ে টেকলাইফ এর দুই পর্বের আয়োজনের শেষ পর্ব...



গ্রাহকের চাহিদার ওপর ভিত্তি করে দেশে স্মার্টফোন বাজার দ্রুতই প্রসারিত হচ্ছে। অধিকাংশ কোম্পানি গ্রাহকের বাজেট ও চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রতিনিয়ত বাজারে সাধ্যের মধ্যে স্মার্টফোন আনছে। গত পর্বে আমরা নূ্যনতম বাজেটে স্মার্টফোন সম্পর্কে জেনেছি। এবার আট হাজার টাকার অধিক মূল্যে দেশের বাজারে শীর্ষ ব্র্যান্ডের নান্দনিক কিছু স্মার্টফোন সম্পর্কে জেনে নিন

স্যামসাং

স্যামসাং সাশ্রয়ী দামের ফোনের পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের জীবনধারার কথা মাথায় রেখে বাজারজাত করছে বৈচিত্র্যময় ফিচারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফোন। গ্যালাক্সি এম১০ :ডুয়েল ক্যামেরা গ্যালাক্সি এম সিরিজের বিশেষ ফিচার। আল্ট্রা-ওয়াইডসমৃদ্ধ ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরার একটি হচ্ছে এফ ১ দশমিক ৯ অ্যাপারচারের ১৩ মেগাপিক্সেল লেন্স এবং অন্যটি ৫ মেগাপিক্সেলের সেকেন্ডারি লেন্স। রয়েছে এক্সিনস ৭৮৭০ অক্টাকোর প্রসেসর, ৩৪০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। ফেস রিকগনিশন আনলক ফিচারসমৃদ্ধ ফোনটির বাজার মূল্য ১১ হাজার ৯৯৯ টাকা। গ্যালাক্সি এ১০: 'রেডি, অ্যাকশন' ট্যাগলাই, ২ জিবি র‌্যামের সঙ্গে ৩২ জিবি রমের চমৎকার মিশেল ঘটানো হয়েছে ডিভাইসটিতে। ৬ দশমিক ২ ইঞ্চির ইনফিনিটি-ভি ডিসপ্লে, পেছনে ১৩ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা, অক্টাকোর প্রসেসর এবং ৩৪০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারির ফোনটির দাম ১১ হাজার ৯৯০ টাকা। গ্যালাক্সি এ১০এস :রিয়ার ফিঙ্গারপ্রিন্ট, ৪০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা, ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডেপথ ক্যামেরার সংমিশ্রণসহ চমৎকার ফিচারের ফোনটির দাম হবে ১২ হাজার টাকার কাছাকাছি।

শাওমি

বাজেটের মধ্যেই যারা নিজেদের আপগ্রেড বা হালনাগাদ করতে ইচ্ছুক তাদের জন্যই দেশের বাজারে স্মার্টফোন নিয়ে এসেছে শাওমি। রেডমি ৮: ১২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরার ফোনটিতে রয়েছে ৬.২ ইঞ্চির এইচডি ডিসপ্লে। ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরের পাশাপাশি থাকছে এআই ফেস আনলক। ৩ ও ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের মূল্য ১৩,৯৯৯ টাকা এবং ৪ ও ৬৪ জিবি ভার্সনটির দাম পড়বে ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা। রেডমি ৮এ : ১৯ :৯ অ্যাস্পেক্ট রেশিও-সম্পন্ন ৬.২২ ইঞ্চির ডট নচ এইচডি প্লাস ডিসপ্লে, রিয়ার ১২ ও ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে। ফোনটির দাম ১০ হাজার ৯৯৯ টাকা। রেডমি ৭ : ১৯ :৯ অনুপাতের ৬.২৬ ইঞ্চি বিশাল ডিসপ্লে ও এফ ২.২ অ্যাপারচার ও এলইডি ফ্ল্যাশসমৃদ্ধ ১২ ও ২ ডুয়েল ও ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরায় স্পষ্ট ও নিখুঁত ছবি দিতে সক্ষম। এতে শক্তিশালী ব্যাটারি, ৫১২ জিবি পর্যন্ত মেমোরি বাড়ানোর সুবিধার ফোনটির সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ১৩,৯৯৯ টাকা। রেডমি ৭এ : ম্যাট ফিনিশ ইউনিবডি ডিজাইনের ফোনটিতে সনি আইএমএক্স ৪৮৬ সেন্সর, ১২ রিয়ার ও ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা, ৪০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, ১৩.৮ সেমি এইচডি ফুলস্ট্ক্রিন ডিসপ্লের ফোনটির বাজার মূল্য ১০,৪৯৯ টাকা।

রেডমি ওয়াই৩ :৩২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরার ফোনটিতে প্রথমবারের মতো যুক্ত করা হয়েছে ক্রিও আর্কিটেকচার। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৩২ দ্বারা চালিত এবং শক্তিশালী ৪০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজের ফোনটির দাম মাত্র ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা।

ওয়ালটন

নিজস্ব কারখানায় তৈরি উচ্চমানের স্মার্টফোন উৎপাদনকারী একমাত্র দেশি প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। ওয়ালটনের গ্রাহকপ্রিয় কয়েকটি স্মার্টফোন- প্রিমো এইচএ প্রো : তিনটি রঙের ফোনটিতে ৫.৭১ ইঞ্চির নচ ডিসপ্লে, অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম, ১.৬ গিগাহার্টজ গতির এআরএম কর্টেক্স-এ৫৫ অক্টাকোর প্রসেসর, পাওয়ার ভিআর জিই৮৩২২ গ্রাফিক্স, ৩ জিবি র‌্যাম, ৩২ জিবি রম, ১৩ মেগাপিক্সেল ব্যাক ও ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা, ডুয়েল সিমের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, ফেস আনলকসহ নানা সুবিধার ফোনটির বাজার মূল্য ৮,৪৯৯ টাকা। প্রিমো আরএক্সসেভেন মিনি :৫.৯ ইঞ্চির ডিসপ্লে, অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম চালিত ফোনটিতে রয়েছে ১.৮ গিগাহার্টজ গতির কর্টেক্স-এ৭৩ এবং এ-৫৩ অক্টাকোর প্রসেসর, ৩ জিবি র‌্যাম, ৩২ জিবি স্টোরেজ, ১৩ এবং ৫ ডুয়েল ব্যাক ক্যামেরা ও ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা, ৩০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, ফেস আনলক, ফিঙ্গারপ্রিন্ট। দাম ৮,৭৯৯ টাকা। প্রিমো আরসিক্স :৬.১ ইঞ্চির ডিসপ্লে, ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ও ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা, ৩ জিবি র‌্যাম, ৩২ জিবি মেমোরি, ৪০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম, ডুয়েল সিমে ফোরজি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট, ফিঙ্গারপ্রিন্ট, ফেস আনলক, ওটিএ এবং ওটিজি। দাম ৯,৫৯৯ টাকা। প্রিমো জিএম৩ প্লাস :৩ জিবি র‌্যাম, ৪০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, ৫.৩৪ ইঞ্চি পর্দার স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ধুলা ও আঁচড়রোধী ২.৫ডি কার্ভড গল্গাস। ১৬ জিবি ও ৬৪ জিবি এক্সপেনডেইবল মেমোরি, পেছনে ১৩ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। দাম ৮ হাজার ৫৯৯ টাকা।

সিল্ফম্ফনি

দেশের বাজারে চাহিদা ও প্রয়োজনের কথা বিবেচনায় রেখে সিম্ম্ফনি নিয়ে এসেছে সাধ্যের মধ্যে বৈচিত্র্যময় কিছু স্মার্টফোন। সিম্ম্ফনি আই৯৫ :অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও-চালিত অপারেটিং সিস্টেমের ৫.৪৫ ইঞ্চির ডিসপ্লের নতুন ফোন আই ৯৫। ২ জিবি র‌্যাম এবং ১৬ ইন্টারনাল স্টোরেজসহ রয়েছে ফেস আনলক সুবিধা। সামনে ১৩ ও পেছনে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরার হ্যান্ডসেটটিতে আছে ৩০০০ এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি। মূল্য ৭ হাজার ৯৯০ টাকা। সিল্ফম্ফনি জেড২০ : ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টাকোর প্রসেসর, ৬.২৬ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস ওয়াটার ড্রপ নচ ডিসপ্লে, পেছনে ১৩ ও ২ এবং সামনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ৩ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি রমের এ ফোনটির দাম ৮ হাজার ৯৯০ টাকা। সিল্ফম্ফনি জেড১৫ :৬.০৯ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস ওয়াটার ড্রপ নচ ডিসপ্লে, পেছনে ১৩ ও ২ এবং সামনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ২ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি রম, ৪০০০ এমএএইচ লি-পলিমার ব্যাটারির ফোনটির দাম ৮ হাজার ৪৯০ টাকা।

নকিয়া

নাকিয়া ২.২ :৫.৭১ এইচডি ডিসপ্লে কম আলোতেও ভালো ছবি পেতে পেছনে ১৩ এবং সামনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, ৩০০০ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে ফোনটিতে। ২ জিবি র‌্যাম ও ১৬ জিবি রমের দাম ১০ হাজার টাকা এবং ৩ জিবি ও ৩২ জিবির দাম ১২ হাজার টাকা। নকিয়া ৩ :আইপিএস এলসিডি পোলারাইজড ডিসপ্লে, গিগাহার্টজ কোয়াডকোড় প্রসেসর, ২ জিবি র‌্যাম, ১৬ জিবি রম, যা ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটেন্ড করা যাবে। গচ ৮ এমপি রিয়ার ও ৮ এমপি ফ্রন্ট ক্যামেরা, ২৬৩০ এমএএইচ ব্যাটারি ক্ষমতার এ ফোনটির বাজার মূল্য ৯,৫০০ টাকা। অপো

অপো এ১কে : ৬.১ ইঞ্চি ওয়াটারড্রপ নচ ডিসপ্লে। অক্টাকোর প্রসেসরের এই স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক এমটিকে৬৭৬২আর চিপসেট এবং পাওয়ার ভিআর জিইই৮৩২০ জিপিইউ। সামনে ৫ ও পেছনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ৪,০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি থাকায় একবার চার্জ দিলে স্মার্টফোনটি ব্যবহার করা যাবে দীর্ঘ সময় ধরে। স্মার্টফোনটির অপারেটিং সিস্টেম কালার ওএস ৬, যা অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই ভিত্তিক। ফোনটির বাজার মূল্য ৯ হাজার ৯৯০ টাকা।

টেকনো

ট্রান্সশন মাল্টি-ব্র্যান্ড স্মার্টফোন হিসেবে গ্রাহকদের কাছে পরিচিত টেকনো বাজারে এনেছে কয়েকটি মিডরেঞ্জর ফোন।

স্পার্ক ৪ :৬.৫২ ডট নট ডিসপ্লে, সমনে ৮ ও পেছনে ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, ৩ জিবি রম ও ৩২ জিবি র‌্যামের ফোনটিতে ৪০০০এমএএইচ ব্যাটারিসহ ফিঙ্গার ও ফেস আনলক সিস্টেম রয়েছে। ক্যমন আই এইচ২ :দেশের বাজারে ১০ হাজার টাকার নিচে নতুন ফোন এনেছে টেকনো। ক্যমন আই এইচ ২ নামের ফোনটি ২ জিবি র‌্যাম, ৩২ জিবি স্টোরেজ ও পেছনে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ থাকছে। এর দাম পড়বে ৮ হাজার ৯৯০ টাকা।

হুয়াওয়ে

ওয়াই৫ লা : ৫.৪৫ ইঞ্চির ৭২০ ও ১৪৪০ পিক্সেল রেজুলেশনের ফোনটিতে এক জিবি র‌্যাম ও ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। পেছনের ৮ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ৩০২০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, ডুয়েল সিমের সুবিধাসহ ব্ল্যাক ও ব্লু রঙের ফোনটিতে ফোরজি সুবিধা পাওয়া যাবে আট হাজার টাকা দামের এ ফোনটিতে। ওয়াই৫ লা ফুলভিউ ডিসপ্লের আকার ৫.৪৫ ইঞ্চি। ১ জিবি র‌্যাম ও ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। পেছনের ৮ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার ফোনটিতে রয়েছে ৩০২০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। দাম ৯ হাজার ৫৯৯ টাকা।

ইউমিডিজি এ৩ : দেশের বাজারে নতুন এসেছে ইউমিডিজি ব্র্যান্ডের এ৩ মডেলের স্মার্টফোন। সাড়ে ৫ ইঞ্চি মাপের ফুলভিউ ডিসপ্লের ফোনটির পেছনে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ, ২ জিবি র‌্যাম ও ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে ফোনটিতে। অনলাইন থেকে কিনলে ছাড় পাওয়া যাবে। দাম আট হাজার টাকা।

গ্রাহক চাহিদার বিশেষ দিক

স্মার্টফোনে ঝকঝকে-চকচকে ছবি, দীর্ঘসময় ব্যবহার, অধিক স্টোরেজ ইত্যাদি এখন গ্রাহককে আকৃষ্ট করে। তাই অধিক মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, শক্তিশালী ব্যাটারি, র‌্যাম ও রমের দিকে লক্ষ্য রাখেন সচেতন গ্রাহকরা। গ্রাহকের এসব চাহিদার কথা বিবেচনা করে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিযোগিতায় নামে বাজারে।

জরুরি বিষয়

স্মার্টফোনের স্ট্ক্রিনের রেজুলেশন, স্টোরেজ, দ্রুতগতির প্রসেসর, র‌্যাম, রম, অপারেটিং সিস্টেম ও ক্যামেরার মেগাপিক্সেল দেখে কিনুন। ব্যাটারির ক্ষমতা ও চার্জ কতক্ষণ থাকে জেনে নিন।