নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ২ যুবককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে নিরাপত্তাহীনতার অজুহাতে মামলা করা হয়নি। পরে উপায়ন্তর না দেখে ঘটনার ৩৬ ঘণ্টা পর শনিবার সকালে ফতুল্লা মডেল থানার এসআই মোজাহারুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় ২২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত পরিচয় আরও একশ' থেকে একশ' পঁচিশ জনকে আসামি করা হয়েছে। তবে ঘটনার দু'দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। ঘটনার পর থেকে ফতুল্লার কাশীপুর হোসাইনী নগর এলাকায় ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন থাকলেও এলাকাবাসীর মধ্যে চাপা আতঙ্ক বিরাজ করছে। ওই এলাকার দোকানপাট এখনও খুলছেন না ব্যবসায়ীরা।
গত বৃহস্পতিবার রাতে মাদক ব্যবসা এবং আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় তুহিন হাওলাদার মিল্টন এবং পারভেজ আহমেদ নামে ২ যুবক নিহত হন। ফতুল্লার কাশীপুর হোসাইনী নগর এলাকার একটি রিকশার গ্যারেজে হামলা চালিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের কুপিয়ে হত্যা করে। ঘটনার পর পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করতে বললে নিহতদের পরিবার থেকে জানানো হয়েছিল, তারা লাশ দাফন করে মামলা করবেন। শুক্রবার দুপুরে লাশ দাফনের পর মামলা করতে যোগাযোগ করলে নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করতে অনীহা প্রকাশ করা হয়। অনেক বুঝিয়েও নিহত দুইজনের কারও পরিবারকেই মামলা করতে রাজি করানো যায়নি। অগত্যা পুলিশই বাদী হয়ে শনিবার সকালে মামলা করেছে।
এদিকে মামলা করতে রাজি না হওয়া প্রসঙ্গে নিহত মিল্টনের স্ত্রী মাজেদা বেগম বলেন, মামলা করার পর আমাদের জীবনের নিরাপত্তা কে দেবে? স্বামীকে হারিয়ে তিনটি মেয়েকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছি। তাই মামলা করতে রাজি হইনি।
অপরদিকে নিহত পারভেজের বাবা মিজানুর রহমান বলেন, আমি আমার ছেলে হত্যার বিচার চাই। তবে বিচার চাইতে গিয়ে যেন আমার পরিবারের অন্য কেউ নিরাপত্তাহীন হয়ে না পড়ে সে জন্য মামলা করতে রাজি হইনি।

মন্তব্য করুন