আশুলিয়ায় কাভার্ডভ্যান চালককে পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশ: ০৭ এপ্রিল ২০১৮      

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার

আশুলিয়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক ক্যাভার্ডভ্যানচালককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হত্যাকাণ্ডের পর বাড়িওয়ালার সহযোগিতায় কৌশলে পালিয়ে যায় হত্যাকারী প্রতিবেশী লিটন। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিক আসাদুজ্জামানকে আটক করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে আশুলিয়ার টঙ্গাবাড়ির এলাকার আসাদুজ্জামানের ভাড়া বাড়িতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম ফরিদ মিয়া। তিনি জামালপুর জেলার মেলান্দহ থানার ব্রাহ্মণপাড়া গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে। তিনি টঙ্গাবাড়ি এলাকার আসাদুজ্জামানের বাড়িতে পরিবার নিয়ে ভাড়া থেকে একটি কাভার্ডভ্যান চালাতেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দুপুরে ফরিদ মিয়া তার নিজ কক্ষে অবস্থান করছিলেন। এ সময় প্রতিবেশী ভাড়াটিয়া লিটনের সঙ্গে ঘরের মাঝখানের দরজা খোলা রাখা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে লিটন কয়েকজন ভাড়াটে সন্ত্রাসী নিয়ে এসে ক্যাভার্ডভ্যানচালক ফরিদ মিয়াকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় স্থানীয়দের সহায়তায় গুরুতর আহত তাকে উদ্ধার করে আশুলিয়ার ধউর এলাকায় ইস্ট-ওয়েস্ট মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এদিকে হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হওয়ার পরও বাড়ির মালিক আসাদুজ্জামান কৌশলে হত্যাকারী লিটন ও তার সঙ্গীদের পালিয়ে

যেতে সাহায্য করে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

আশুলিয়া থানার এসআই রুহুল আমিন জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিক আসাদুজ্জামানকে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়া

নিহতের মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে

পাঠানো হয়েছে।