কৃষকের হাত-পা ভেঙে দেওয়ার পর মামলা তুলে নিতে হুমকি

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০১৮      

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

রূপগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের শিমুলিয়া এলাকায়  জমি লিখে না দেওয়ায় এক প্রভাবশালী ভূমিদস্যুর নির্দেশে তার সন্ত্রাসী বাহিনী আবদুল ওহাব  নামে এক কৃষকের হাত-পা ভেঙে পঙ্গু করে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ওই কৃষক মামলা করেছেন। এ মামলা তুলে না নিলে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে ওই কৃষকসহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, জমি লিখে না দিলে ওই প্রভাবশালী তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে নিরীহদের বসতবাড়িতে হামলা চালাচ্ছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। এতে ব্যর্থ হলে জাল-জালিয়াতি করে কৃষকদের জমি দখলে নিচ্ছে তারা।

শিমুলিয়া এলাকার আবু তাহের অভিযোগ করে জানান, তার বাবা একজন কৃষক। শিমুলিয়া এলাকায় এএইচএম গোলাম কবির নামে এক প্রভাবশালী নামে-বেনামে বেশকিছু জমি কেনেন। এএইচএম গোলাম কবিরের পালিত সন্ত্রাসী সাইফুল ইসলাম হিরাসহ এ গ্রুপের লোকজন তাদের ৮৪ শতাংশের একটি কৃষিজমি জবরদখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছে। এএইচএম গোলাম কবিরের কাছে জমিটি বিক্রি করতে বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করে আসছে। এতে রাজি না হলে এএইচএম গোলাম কবিরের নির্দেশে সাইফুল ইসলাম হিরা বাহিনী সশস্ত্র অবস্থায় গত ৯ জুন আবু তাহেরের বাবা আবদুল ওহাবের হাত-পা ভেঙে দেয়। এ সময় আবু তাহেরকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। শুধু তাই নয়, বাড়িঘরের পাশাপাশি দোকানপাটও আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয় সন্ত্রাসীরা।

মামলা তুলে না নিলে আবু তাহের, তার বাবা আবদুল হকসহ পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দেয়। এ ব্যাপারে ইউএনও আবুল ফাতে মো. সফিকুল ইসলামের কাছেও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয় ভুক্তভোগী কৃষক পরিবার।

অভিযুক্ত এএইচএম গোলাম কবিরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।