মিথ্যা যৌতুক মামলা

বন্দরে স্ত্রীর শাড়ি দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে শ্রমিকের আত্মহত্যা

প্রকাশ: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

স্ত্রীর দায়ের করা মিথ্যা যৌতুক মামলায় আগামীকাল সোমবার আদালতে হাজিরা ছিল হোসিয়ারি শ্রমিক কামাল হোসেনের। কিন্তু তার আগেই শুক্রবার রাতে স্ত্রীর শাড়ি গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। শুক্রবার রাতেই বন্দর উপজেলার চৌধুরীবাড়ি এলাকার প্রধান বাড়ি থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় শনিবার তার ভগ্নিপতি আবদুল আজিজ বন্দর থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন। কামাল উপজেলার চৌধুরীবাড়ি এলাকার প্রধান বাড়ির নাসির উদ্দিনের ছেলে।

বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, চার বছর আগে কামাল ও মৌমিতার বিয়ে হয়। তাদের সংসারে জুবায়ের নামে তিন বছরের একটি পুত্রসন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। কিছুদিন আগে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া চরম আকার ধারণ করলে মৌমিতা বাবার বাড়ি চলে যান। পরে মৌমিতা কামালের বিরুদ্ধে আদালতে মিথ্যা যৌতুক মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাভোগের পর কিছুদিন আগে কামাল জামিনে মুক্ত হন। আগামীকাল সোমবার ওই মামলায় তার হাজিরা ছিল। স্ত্রীর মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার এবং কারাভোগের কারণে মানসিকভাবে কামাল হতাশাগ্রস্ত ছিলেন। এরই মধ্যে শুক্রবার রাতে কামাল তার নিজ ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে স্ত্রীর  শাড়ি গলায় পেঁচিয়ে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন।