সাটুরিয়ায় সড়কের মোড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুতের খুঁটি

প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০১৯      

মো. জাহাঙ্গীর আলম, (সাটুরিয়া, মানিকগঞ্জ)

সাটুরিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তিন সড়কের মোড়ে বিদ্যুতের একটি খুঁটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজট হয়ে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন যাত্রীরা। স্থানীয়ভাবে বিদ্যুতের ওই খুঁটি সরাতে স্থানীয় প্রশাসনকে অবহিত করলেও দীর্ঘদিনেও কোনো কাজ না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা।

জানা গেছে, সাটুরিয়া থেকে গাবতলী, দরগ্রাম ও পাকুটিয়া তিন সড়কের মোড়ে দীর্ঘদিন ধরে রয়েছে বিদ্যুতের একটি খুঁটি। প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে ভিআইপি, পর্যটক, কর্মকর্তাসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ আসেন বালিয়াটি জমিদার বাড়ি দর্শনে। ওই মোড়ের বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে প্রায়ই কোনো না কোনো গাড়ির ধাক্কা লাগছে এবং উল্টোদিক থেকে আসা গাড়ি মুখোমুখি হয়ে যানজট হচ্ছে। এতে যাত্রীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন ঘণ্টার পর ঘণ্টা। মাঝেমধ্যে ত্রিমুখী যানজট হয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

এলাকার কয়েক বাসিন্দা বলেন, পল্লী বিদ্যুতের লোকজন কয়েক বছর আগে বিদ্যুতের খুঁটিটি তিন রাস্তার মোড়ে বসায়। এতে মোড়ে যানজট হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এলাকার মানুষ আতঙ্কে থাকেন কখন তা ভেঙে দুর্ঘটনা ঘটে।

সাটুরিয়া জনসেবা বাস চালকরা বলেন, একটি বিদ্যুতের খুঁটির জন্য ওই মোড়ে গাড়ি ঘোরানো যায় না। মোড় নিতে না নিতে আরেক পাশ থেকে আরেক গাড়ি চলে আসছে। ফলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যাত্রী নিয়ে মোড়ে আটকে থাকতে হচ্ছে।

সাটুরিয়া সরকারি আদর্শ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন বলেন, মোড়ের বিদ্যুতের খুঁটি সরালে চলাচলের কিছুটা সুবিধা হবে। ওই মোড়ে যানজটের কারণে থেমে থাকা বাসের হর্নের বিকট শব্দে ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়ায় বিঘ্ন ঘটছে। সাটুরিয়া পল্লী বিদ্যুৎ অঞ্চলের এজিএম আবদুল খালেক বলেন, জননিরাপত্তার জন্য ওই খুঁটি সরানো খুবই দরকার। খুঁটি সরানোর বিষয়ে কোনো ব্যক্তি লিখিত অভিযোগ করলে সেটি সরানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সড়কের উন্নয়ন কাজের জন্য ওই খুুঁটি ঠিকাদার নিজে সরাবেন বলে শুনেছি।

সাটুরিয়া থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, সাটুরিয়া এসবি লিংক বাসস্ট্যান্ডের ১০০ গজ সামনে তিন সড়কের মোড়। ওই মোড় দিয়ে ব্যাপক যানবাহন চলাচল করে। মোড়ে একটি খুঁটি থাকায় গাড়িচালকরা সহজে মোড় নিতে পারেন না। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন পর্যটক ও ভিআইপিরা আসা-যাওয়া করেন। এ ছাড়া উত্তরাঞ্চলের ডে-নাইট কোচগুলো টাঙ্গাইল হয়ে সাটুরিয়া দিয়ে গাবতলী চলাচল করে। তা ছাড়া এ মোড়ে ট্রাফিক না থাকায় দীর্ঘ যানযটের সৃষ্টি হচ্ছে। যানজট মুক্ত করতে আমাদের হিমশিম খেতে হয়।