চুরির অভিযোগে জাবিতে ছাত্রলীগ কর্মীকে হলছাড়া

প্রকাশ: ২০ মে ২০১৯

জাবি প্রতিনিধি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারও ল্যাপটপ চুরির অভিযোগে ছাত্রলীগের এক কর্মীকে হল থেকে বের করে দিয়েছেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। রোববার বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের আবাসিক ছাত্ররা বিষয়টি জানান। এর আগে গত ৬ মে বঙ্গবন্ধু হল থেকে চুরির অভিযোগে একজনকে বের করে দেওয়া হয়।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের কয়েকজন ছাত্র জানান, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় হলের ২২৫ নম্বর কক্ষ থেকে একটি ল্যাপটপ চুরি হয়। কয়েকজন ছাত্র মিলে ওই ব্লকের সব কক্ষে তল্লাশি চালিয়ে মারুফ সিকদার নামে এক শিক্ষার্থীর কক্ষের জানালার কার্নিশ থেকে ল্যাপটপটি উদ্ধার করেন। মারুফ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসি বিভাগের ৪৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তিনি শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

এ ঘটনার পর রাতে সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে বৈঠকে ল্যাপটপ চুরির অভিযোগে মারুফকে হল থেকে বের করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠক সূত্র জানায়, এর আগে বিভিন্ন সময়ে হলে চারটি ল্যাপটপ চুরির ঘটনা ঘটে। এসব ল্যাপটপ চুরির জন্যও মারুফকে অভিযুক্ত করে ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়। অভিযোগের বিষয়ে জানতে মারুফ সিকদারের মোবাইল ফোনে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, যার ল্যাপটপ চুরি হয়েছে এবং যাকে সন্দেহ করা হচ্ছে, দু'জনই আমাদের কর্মী। তবে মারুফকে হলছাড়া করার অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি।