সিদ্ধিরগঞ্জে ফেসবুকে বন্ধু সেজে অপহরণ

প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০১৯

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

ফেসবুকে পরিচয় সূত্রে বন্ধুত্ব আর বন্ধুর আহ্বানে ছুটে এলে তাকে অপহরণ করে বেধড়ক মারধর করে ৮০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। পরে বিকাশের মাধ্যমে ৪০ হাজার টাকা মুক্তিপণ আদায় করে অপহরণকারীরা বন্ধু মিঠুনকে ছেড়ে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকার আর কে পার্কসংলগ্ন এলাকায়। এ ঘটনায় ওই যুবক অপহরণকারীদের কাছ থেকে ছাড়া পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অভিযোগ করলে রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আলাউদ্দিন, মো. শুভ. ইমন, রফিকুল ইসলাম নামে চার অপহরণকারীকে গ্রেফতার করে। তবে মূল হোতা রুবেল ওরফে সুজন আত্মগোপনে রয়েছে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মীর শাহীন শাহ পারভেজ এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। গ্রেফতারদের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা, সাতটি মোবাইল ফোনসেট ও একটি রুপার চেইন উদ্ধার করে পুলিশ। মঙ্গলবার গ্রেফতার আসামিদের নারায়ণগঞ্জ চিফ জুডিসিয়াল আদালতে পাঠিয়ে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অপহৃত যুবকের নাম মো. মিঠুন। তিনি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার বরাব এলাকার সূরযত আলীর ছেলে।

ওসি আরও জানান, রূপগঞ্জ উপজেলার মিঠুনের সঙ্গে ফেসবুকে দু-তিন মাস আগে সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুঁড়ি এলাকার রুবেল ওরফে সুজনের বন্ধুত্ব হয়। সেই সূত্র ধরে গত সোমবার দুপুরে মিঠুন জালকুঁড়ি বাসস্ট্যান্ডে আসে। সেখান থেকে রুবেল তার সহযোগী ইমনের মাধ্যমে মিঠুনকে রিকশায় করে জালকুঁড়ি আরকে পার্কের পেছনে নিয়ে আসে। সেখানে মিঠুনকে মারধর করে টাকা, মোবাইল ফোনসেট ও রুপার চেইন ছিনিয়ে নেয়। পরে রুবেল তার মোবাইল ফোনসেট থেকে মিঠুনের ভগ্নিপতির কাছে ফোন করে মুক্তিপণ হিসেবে ৮০ হাজার টাকা দাবি করে। পরে মিঠুনের বাবা বিকাশের মাধ্যমে রুবেলকে ৪০ হাজার টাকা পাঠানো হলে মিঠুনকে ছেড়ে দেয়।