ভাঙ্গুড়ায় পূর্ব বিরোধে গৃহবধূকে পিটিয়ে জখম

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০১৮      

পাবনা অফিস

ভাঙ্গুড়ায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে ফেরদৌসী খাতুন নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার বিকেলে উপজেলার অষ্টমনিষা ইউনিয়নের ছোটবিশাকোল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর গুরুতর আহত গৃহবধূকে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ফেরদৌসীর ছোট বোন বীথি বাদী হয়ে ভাঙ্গুড়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। আহত ফেরদৌসী ওই গ্রামের আমির প্রামাণিকের মেয়ে ও রাজশাহী জেলার মহনপুর উপজেলার হাটরা ফরিদপুর গ্রামের ইকবাল হোসেনের স্ত্রী।

দীর্ঘদিন ধরে ছোটবিশাকোল গ্রামে আমির প্রামাণিকের বসতবাড়ির যাতায়াতের রাস্তাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী তোফাজ্জল হাজির সঙ্গে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির জন্য এলাকার চেয়ারম্যানসহ গ্রাম্যপ্রধানরা কয়েকবার সালিশের আয়োজন করেন। পরে বৈঠক না মেনে হাজিসহ তার পরিবারের অন্য সদস্যরা চাপ প্রয়োগ করতে থাকে ওই পরিবারকে। গত শুক্রবার সকালে আমির প্রামাণিকের বসতবাড়ির পাশে খড়ের পালা দেওয়ার সময় হাজির একটি বাঁশঝাড়ে লেগে গেলে তারা গ্রাম্যপ্রধানদের উপস্থিতিতে ওই ঝাড়ের কয়েকটি হেলে পরা বাঁশের মাথা কেটে দেয়। এরপর বিকেল সাড়ে ৪টায় হাজি ও তার ছেলে মুক্তি আমির প্রামাণিকের বাড়ির সামনে এসে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করতে থাকে। আমির প্রামাণিক না থাকায় তার পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এ সময় আমির প্রামাণিকের মেয়ে ফেরদৌসী প্রতিবাদ করলে তারা ফেরদৌসীকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জখম করে। তাকে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি শেখ শাহীন কামাল বলেন, অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।