নির্দেশ অমান্য করায় কোচিং সেন্টার সিলগালা

মিঠাপুকুর

প্রকাশ: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধি

সরকারি নির্দেশ অমান্য করে মিঠাপুকুরে কোচিং সেন্টার পরিচালনার অভিযোগে গ্লোবাল রেসিডেনসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ সিলগালা করে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল শনিবার এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে ইউএনও মামুন অর-রশীদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত এই অভিযান পরিচালনা করেন।

সরকার চলতি মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা চলাকালে কোচিং সেন্টার বন্ধ করার ঘোষণা দেয়। কিন্তু এই নির্দেশ অমান্য করে মিঠাপুকুর সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কামরুল ইসলাম সাজু পরিচালিত রাফি কোচিং সেন্টার চালু রাখে। গতকাল শনিবার পরীক্ষার প্রথম দিনেও আদর্শপাড়া এলাকায় গ্লোবাল রেসিডেনসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শ্রেণিকক্ষ পাঠদান চলছিল। সকালে খবর পেয়ে ইউএনও মামুন অর-রশীদ সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। তিনি তাৎক্ষণিকভাবে গ্লোবাল রেসিডেনসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান ফটক বন্ধ করে সিলগালা করে দেন। এ সময় রাফি কোচিং সেন্টারের পরিচালক ও গ্লোবাল রেসিডেনসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের কাউকে পাওয়া যায়নি।

মিঠাপুকুর সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও রাফি কোচিং সেন্টারের পরিচালক কামরুল ইসলাম সাজু বলেন, একমাস কোচিং সেন্টার বন্ধের নির্দেশে আমরা গ্লোবাল বিদ্যালয়ে ক্লাস নিতে চাচ্ছিলাম। তবে সকালে এসে ইউএনও স্যার সিলগালা করে দিয়েছেন। গ্লোবাল রেসিডেনসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পরিচালক মুরাদুজ্জামান সরকার মুরাদ বলেন, আমাদের না জানিয়ে রাফি কোচিং সেন্টারের পরিচালক গোপনে ক্লাস নিচ্ছিলেন। পরে ইউএনও এসে সিলগালা করে দেন। মিঠাপুকুর ইউএনও মামুন-অর রশীদ বলেন, মিঠাপুকুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও রাফি কোচিং সেন্টারের পরিচালক কামরুল ইসলাম সাজুর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়ে অনুরোধ করা হবে।