পরীক্ষা দিতে পারেনি অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী

সৈয়দপুরে এসএসসির ফরম পূরণে প্রতারণা

প্রকাশ: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি

সৈয়দপুরে ৫১ শিক্ষার্থীর কাছে এসএসসি ফরম পূরণ করতে মোটা অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নিয়ে প্রবেশপত্র না দেওয়ায় প্রজাপতি স্কুলের পরিচালক শাকিল আহমেদকে আটক করেছে পুলিশ। শিক্ষার্থীরা ওই পরিচালকের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার ইউএনও বরাবর অভিযোগ দিলে শুক্রবার তাকেসহ সহকারী শিক্ষক আলিম হোসেনকে আটক করা হয়।

প্রজাপতি স্কুলের পরিচালক শাকিল আহমেদ তার নিজ প্রতিষ্ঠান থেকে ৯০ জন ও শহরের বিভিন্ন স্কুলের এসএসসির টেস্ট পরীক্ষায় অকৃতকার্য ৫১ শিক্ষার্থীকে বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। এ নিয়ে তিনি শিক্ষার্থীপ্রতি আট হাজার থেকে ১৪ হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নেন। সেইসঙ্গে কোচিং করার নামে শিক্ষার্থীপ্রতি চার হাজার টাকা আলাদাভাবে আদায় করেন।

আদায়কৃত অর্থে নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের বৃহস্পতিবার প্রবেশপত্র দিলেও অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার প্রবেশপত্র প্রদানে ব্যর্থ হন। প্রবেশপত্র না পাওয়া শিক্ষাথী ও অভিভাবকরা উত্তেজিত হয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি ঘেরাও করে। পরে পরিচালক শাকিল আহমেদ উপস্থিত হয়ে বলেন, শুক্রবারের মধ্যে অ্যাডমিট কার্ড দিতে না পারলে আপনাদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে। বৃহস্পতিবার রাতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ইউএনও বরাবরে অভিযোগ করেন।

পরিচালক শাকিল আহমেদ জানান, শহরের ক্যান্টবোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়, সৈয়দপুর আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আল ফারুক একাডেমি, কয়া গোলাহাট স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সৈয়দপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় এবং পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অনুরোধেই তাদের অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে যে অর্থ আদায় করা হয়েছিল তার তিন ভাগের এক ভাগ ওইসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের দেওয়া হয়। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে বোর্ড কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র দেয়নি। তবে গত শুক্রবার প্রবেশপত্র না দেওয়া শিক্ষার্থীদের অর্থ ফেরত দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে ইউএনও এম গোলাম কিবরিয়া জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে।