রেলওয়ে জংশনে স্টেশন সুপার নেই ৩ মাস

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০১৯

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি

ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশনে তিন মাস ধরে স্টেশন সুপারিনটেনডেন্ট (এসএস) নেই। তিন মাস আগে এই স্টেশনের সুপারিনটেনডেন্ট আব্দুল করিম পদোন্নতি পেয়ে স্টেশন ম্যানেজার হয়ে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে যোগদানের পর থেকে পদটি শূন্য রয়েছে।

দেশের সবচেয়ে বড় এই জংশন স্টেশনে সুপারিনটেনডেন্ট না থাকায় ট্রেন ও স্টেশন সংশ্নিষ্ট সব কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। রেলওয়ে জংশন স্টেশনের সবচেয়ে শীর্ষ পদের এই কর্মকর্তার পদটি শূন্য থাকায় ঈশ্বরদী স্টেশন-সংশ্নিষ্ট কর্মচারীদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করার ক্ষেত্রে জবাবদিহি নেই বললেই চলে। এতে এই স্টেশনের সব কাজে চরম স্থবিরতা চলছে বলে জানান স্টেশনের কর্মচারীরা।

ট্রেনের টিকিট কালেক্টর, পার্সেল সহকারী, বুকিং সহকারীরা তাদের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে যেমন ইচ্ছেমত চলছেন, তেমনি বিভিন্ন ট্রেন বিলম্বে চলাচলের তথ্য প্রদান কার্যক্রমও বন্ধ রয়েছে এই স্টেশনে। স্টেশনে মাইকে অ্যানাউন্সমেন্ট সঠিকভাবে না হওয়ায় যাত্রীরা জানতে পারছেন না কখন কোন ট্রেন আসবে অথবা কোন ট্রেন কতটা বিলম্বে চলাচল করছে।

রেলওয়ে পরিবহন পরিদর্শক (টিআই) একেএম নুরুল আলম বলেন, স্টেশনের ট্রেন আসা-যাওয়া অথবা কোন ইঞ্জিন কোন সময় কোথায় শান্টিং করবে তার তাৎক্ষণিক নির্দেশনা দেওয়ার কেউ নেই। মালবাহী ট্রেন লোড-আনলোডের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতেও অযথা সময়ক্ষেপণ হচ্ছে, সর্বোপরি এসএস না থাকায় রেলওয়ের সার্বিক কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

এ ব্যাপারে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) আব্দুল্লাহ-আল মামুন জানান, ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশন স্টেশনের এসএস পদটি প্রমোশনাল, তাই পদোন্নতি না পেলে এই পদে নতুন কাউকে যোগদান করানো যাচ্ছে না। তবে রাজশাহী থেকে খুব শিগগিরই একজন এসএসকে ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশন স্টেশনে পদায়ন করা হবে।