সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ চেয়ারম্যানকে মামলা দিয়ে হয়রানি

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

তেঁতুলিয়া উপজেলার বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কুদরত-ই-খুদা মিলনকে মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সোমবার সকালে বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ইউপি চেয়ারম্যান এই অভিযোগ করেন।

লিখিত বক্তব্যে মিলন বলেন, দেবনগর ইউনিয়নের বালুবাড়ী এলাকার আব্দুল হামিদ এক বছর আগে আব্দুস সাত্তারের কাছে ৪০ শতক জমি ভাড়া নেন। ১৯৯৭ সালে তিনি বগুড়ার ময়নুল হক সুলতান, রেজাউল বারী, হাসিব চৌধুরী, ইমতিয়াজ ও আমিনুর রশিদের কাছে জমিটি বিক্রি করেন। সাত্তার জমির দেখভাল করতেন। এরই মধ্যে সাত্তার ওই জমি আব্দুল হামিদ নামে এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করেন। সম্প্রতি বিক্রির বিষয়টি জানাজানি হলে জমির প্রকৃত মালিকরা স্থানীয় সাইদুল ইসলাম, আজিজার রহমান ও তহিদুল ইসলামকে বায়নামা রেজিস্ট্রি করে দেন। স্থানীয় চেয়ারম্যান হিসেবে হামিদের এসব অন্যায় কাজের সমর্থন না দেওয়ায় আমার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ মিথ্যা মামলা এবং সংবাদ সম্মেলন করে মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে। এই হয়রানির সঙ্গে রাজশাহীর জিন্নাত আরা রোকেয়া চৌধুরী ও আব্দুল হামিদ জড়িত।

সংবাদ সম্মেলনে হামিদের মামলা ও হয়রানির শিকার ওই এলাকার আজিজার রহমান, সাইদুল ইসলাম, তহিদুল ইসলাম, আতাউর রহমান উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে খোঁজ করেও অভিযুক্ত জিন্নাত আরা রোকেয়া চৌধুরী ও আব্দুল হামিদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।