সাঘাটায় গৃহবধূ ফাতেমার মৃত্যু নিয়ে রহস্য

প্রকাশ: ১৪ নভেম্বর ২০১৯

সাঘাটা (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি

সাঘাটা উপজেলার উত্তর দিঘলকান্দি গ্রামে গৃহবধূ ফাতেমা আক্তারের মৃত্যু নিয়ে রহস্যের জট তৈরি হয়েছে। এটাকে কেউ বলছে হত্যা, কেউ বলছে আত্মহত্যা।

নিহত ফাতেমার পরিবার জানায়, গত সেপ্টেম্বর মাসে পার্শ্ববর্তী গ্রামের সুরাহকের ছেলে আব্দুল মমিনের সঙ্গে উত্তর দিঘলকান্দি গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রসিদের মেয়ে ফাতেমা আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে বাড়ি থেকে পালিয়ে তারা বিয়ে করে। বিয়ের পর ফাতেমার শ্বশুরবাড়ির লোকজন যৌতুকের জন্য ফাতেমাকে মারধর করে। গত মঙ্গলবার বড় বোন সালমা বেড়াতে গেলে তার সামনেই ফাতেমাকে মারধর করা হয়। পরে বুধবার ফাতেমার শয়নকক্ষের মেঝেতে তার লাশ পাওয়া যায়। পুলিশকে সংবাদ দিলে তারা লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ফাতেমার বাবা সাঘাটা থানায় এজাহার দায়ের করেন। সাঘাটা থানার ওসি বেলাল হোসেন জানান, প্রাথমিক আলামতে তেমন কিছু পাওয়া যায়নি। তাই ময়নাতদন্ত রিপোর্ট ছাড়া কিছুই বলা যাচ্ছে না।