দেবীগঞ্জে পেট্রোলের আগুনে পুড়ে নারীর মৃত্যু

প্রকাশ: ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯      

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

দেবীগঞ্জের সবুজপাড়া মরাতল্লী এলাকায় রোববার রাতে পেট্রোলের আগুনে দগ্ধ হয়ে সুইটি আক্তার নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে তার আটটি গরু ও একটি ছাগলও পুড়ে মারা যায়। নিহত সুইটি আক্তার ওই এলাকার সুরুত জামালের স্ত্রী।

মরাতল্লী মোড়ে একটি মুদি দোকানে পেট্রোল বিক্রিসহ কাপড় সেলাইয়ের কাজও করতেন সুইটি আক্তার। রোববার সন্ধ্যার পর বিদ্যুৎ চলে গেলে তিনি মোমবাতি জ্বালিয়ে জার থেকে বোতলে পেট্রোল ভরছিলেন। এ সময় মোমবাতির স্পর্শে পেট্রোল জ্বলে উঠলে দগ্ধ হন তিনি। একপর্যায়ে পুরো দোকানে আগুন ছড়িয়ে যায়। স্থানীয়রা অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় সুইটিকে উদ্ধার করে প্রথমে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সোমবার ভোরে সেখানে মারা যান তিনি।

এদিকে, আগুন দোকানসংলগ্ন তার বাড়িসহ কয়েকটি ঘরে পৌঁছে যায়। খবর পেয়ে নীলফামারীর ডোমার ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এর মধ্যে সুইটির বাড়ির আটটি গরু ও একটি ছাগল পুড়ে মারা যায়।

ডোমার ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার ফরহাদ হোসেন বলেন, খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। সুইটির দোকানে থাকা পেট্রোলের সঙ্গে কোনোভাবে আগুনের স্পর্শে এই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। এতে পাশাপাশি চার পরিবারের ৯টি ঘর আগুনে পুড়ে যায়।