'৯৫ শতাংশ ধর্ষণ মামলাই ডিসমিস হয়ে যায়'

প্রকাশ: ১৮ অক্টোবর ২০২০

বগুড়া ব্যুরো

বগুড়া জেলা পুলিশের আয়োজনে শনিবার নারী নির্যাতন ও ধর্ষণবিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশে বক্তারা বলেন, নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ মামলার শতকরা মাত্র পাঁচ শতাংশের সাজা হয়। ৯৫ শতাংশ মামলাই ডিসমিস হয়ে যায়। এর কারণ মামলার পর বাদী-বিবাদীর আপস করে নেওয়া, দুর্বল সাক্ষী ও সাক্ষ্য দিতে আদালতে না যাওয়ায় সাক্ষ্যপ্রমাণের অভাব এবং মিথ্যা মামলা দায়ের করায় মামলাগুলো বেশিদূর এগোতে পারে না।'

খোকন পার্কে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা। বক্তব্য দেন জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর নরেশ মুখার্জি, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্র্রেট সালাউদ্দিন আহমেদ, সরকারি মুজিবর রহমান মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ জোহরা ইসলাম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. মকবুল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, টিএমএসএসের নির্বাহী পরিচালক ডা. হোসনে আরা বেগম, সাংবাদিক মোজাম্মেল হক লালু, বগুড়া বারের সভাপতি গোলাম ফারুক, বগুড়া চেম্বারের সভাপতি মাসুদার রহমান মিলন, মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন বাবলু প্রমুখ।