খাতা মূল্যায়নের কথা বলে টাকা আদায়

মিঠাপুকুরে জালালগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়

প্রকাশ: ২২ নভেম্বর ২০২০

মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধি

বাড়িতে পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নের (হোম অ্যাসাইনমেন্ট) কথা বলে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মিঠাপুকুরের জালালগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অসন্তোষ দেখা দিয়েছে অভিভাবকদের মধ্যে।

অভিভাবকরা জানান, জালালগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩০০ শিক্ষার্থী পড়ালেখা করে। করোনার কারণে দেশের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মতো জালালগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ও নয় মাস ধরে বন্ধ রয়েছে। তবে বাড়িতে অভিভাবকদের তত্ত্বাবধানে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের নির্দেশে সেই খাতা মূল্যায়নের (হোম অ্যাসাইনমেন্ট) কথা বলে প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ২০০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। এভাবে অর্ধ লাখেরও বেশি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি।

অভিভাবক তছলিম উদ্দিন বলেন, আমার মেয়ে জালালগঞ্জ হাইস্কুলে নবম শ্রেণিতে পড়ে। বাড়িতে পরীক্ষা নেওয়ার কথা বলে ২০০ টাকা নিয়েছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু, কোনো রসিদ দেয়নি। একই অভিযোগ করেন অভিভাবক ফারুক মিয়া, আজিজুল ইসলামসহ অনেকে।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুল কুদ্দুস মিয়া বলেন, শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করে টাকা নেওয়া হচ্ছে। অনেকেই এখনও টাকা দেননি। তবে হোম অ্যাসাইনমেন্টের জন্য টাকা নেওয়ার কোনো সরকারি নির্দেশনা নেই বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, হোম অ্যাসাইনমেন্টের নামে টাকা নেওয়া যাবে না। এ ধরনের অভিযোগ পেলে সংশ্নিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।