আড়ানী পৌরসভা নির্বাচন আজ। এই নির্বাচনে পক্ষে-বিপক্ষে অবস্থান নেওয়ায় আওয়ামী লীগদলীয় মেয়র প্রার্থীর সমর্থককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে বিদ্রোহী প্রার্থীর আরেক সমর্থক। এতে গুরুতর আহত হয়েছেন আওয়ামী লীগদলীয় প্রার্থীর সমর্থক, পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান ও তার ভাগ্নে আরিফ হোসেন। তাদের ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে বজলুর রহমানেরই চাচাতো ভাই ও বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী মুক্তার আলীর সমর্থক আশিক হোসেন। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের নূরনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাতে আড়ানী পৌরবাজারে ওই দুই মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, গোলাগুলি ও বোমার বিস্ম্ফোরণসহ নির্বাচনী অফিস ও দোকানপাট ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এর জেরে আওয়ামী লীগদলীয় প্রার্থী শহীদুজ্জামানের পক্ষ থেকে মুক্তার আলীকে প্রধান আসামি করে ৫০ জনের নাম উল্লেখসহ প্রায় ৫০০ থেকে ৬০০ জনকে অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করে মামলা করা হয়। এ মামলায় আসামি ধরতে নূরনগর এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। এতে বজলুরকে সন্দেহ করে আশিকসহ তার পক্ষের লোকজন বজলুরের ওপর হামলা চালায়। তাকে উদ্ধার করতে গেলে ভাগ্নে আরিফকেও কুপিয়ে জখম করা হয়।

বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য করুন