গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার আব্দুল মজিদ সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয় মাঠে পড়ে থাকা গাছ সরানোর দায় কার। প্রায় সাত মাস হয়ে গেলেও সরানো হয়নি গাছ দুটি। এ নিয়ে এলাকায় চলছে ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা। ইতোমধ্যে গাছ সরানোর জন্য আবেদন করেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

উপজেলার পৌর শহরের ৩নং ওয়ার্ডবাসীর চলাচলের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে সরকারি বালক স্কুল মাঠ-সংলগ্ন রাস্তাটি। গত বছর জুন মাসে কালবৈশাখীতে বিদ্যালয় মাঠের রাস্তার ধারের দুটি বটগাছ পড়ে যায়। এরপর থেকে আর সরাাে হয়নি গাছ দুটি। দীর্ঘদিন ধরে গাছ পড়ে থাকায় পথচারীর চলাচলে বিঘ্নিত হচ্ছে। এদিকে, করোনার কারণে প্রতিষ্ঠান বন্ধ। আগে স্থানীয় ছেলেমেয়েরা খেলাধুলা করত মাঠের মধ্যে। গাছ পড়ে থাকায় তাদের খেলাধুলা বন্ধ রয়েছে।

পথচারী ফরমান আলী জানান, গাছ দুটি পড়ে থাকার কারণে চলাচলে সমস্যা হচ্ছে। বিশেষ করে ছেলেমেয়েদের খেলাধুলা বন্ধ হয়ে গেছে। পড়ে থাকা গাছ দুটি দ্রুত সরানো দরকার।

এদিকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা জানিয়েছেন সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয় এবং মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও প্রাথমিক স্তরের বই বিতরণ করা হচ্ছে। মাঠে গাছ পড়ে থাকার কারণে যানবাহন নিয়ে বই বহন করতে সমস্যা হচ্ছে।

প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম জানান, গত ১৬ জানুয়ারি পৌরসভা নির্বাচনের আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর গাছ দুটি সরানোর জন্য আবেদন দেওয়া হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত গাছ সরানোর কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এ অবস্থায় মাধ্যমিক ও প্রাথমিকের বই বিতরণে সমস্যা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আল মারুফ জানান, গাছ সরানোর আবেদন পাওয়ার পর ফরেস্ট অফিসের মাধ্যমে গাছের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। এখন নিলামে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

মন্তব্য করুন