সেই ইউপি চেয়ারম্যানের বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার

প্রকাশ: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

জয়পুরহাট প্রতিনিধি

অবশেষে ক্ষেতলাল উপজেলার বড়াইল ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে। ১৮ ফেব্রুয়ারি সিনিয়র সহকারী সচিব আবু জাফর রিপন স্বাক্ষরিত জেলা প্রশাসক বরাবর পাঠানো চিঠি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চিঠিতে জানানো হয়েছে, ক্ষেতলাল উপজেলার বড়াইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জেলা প্রশাসক বরাবর অনিয়ম না করার অঙ্গীকারনামা দেওয়ায় তাকে ক্ষমা করা হয়।

অনিয়মের অভিযোগে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সংশ্নিষ্ট অধিশাখা গত বছরের ২২ সেপ্টেম্বর বড়াইল ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরকে সাময়িক বরখাস্তের প্রজ্ঞাপন জারি করে। ওই আদেশ চ্যালেঞ্জ করে ইউপি চেয়ারম্যান উচ্চ আদালতে রিট করেন। শুনানি শেষে উচ্চ আদালত গত বছরের ২ নভেম্বর বরখাস্তের আদেশ তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন। আদালতের নির্দেশে চেয়ারম্যান পরিষদ পরিচালনা করা অবস্থায় মন্ত্রণালয় থেকে তার সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীর বলেন, 'অনিয়ম হলেও আমার বিরুদ্ধে কোনো দুর্নীতির অভিযোগ ছিল না। প্রতিপক্ষ আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে এ অভিযোগ করেছে। তদন্তে দুর্নীতি না পেয়ে বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।'

জেলা প্রশাসক শরীফুল ইসলাম বলেন, 'চেয়ারম্যানের মাধ্যমেই তার বরখাস্তাদেশ প্রত্যাহারের চিঠি আসার কথা জেনেছি।