ঘর দেওয়ার নামে টাকা আদায় চেয়ারম্যানের

প্রকাশ: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

পাবনা অফিস

চাটমোহরে সরকারি ঘর দেওয়ার কথা বলে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নিমাইচড়া ইউপি চেয়ারম্যান এইচএম কামরুজ্জামান খোকনের বিরুদ্ধে। সোমবার ইউএনও বরাবর তিনজন ভুক্তভোগী এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন।

অভিযোগে জানা যায়, এক বছর আগে 'জমি আছে ঘর নেই' প্রকল্পের সরকারি ঘর দেওয়ার কথা বলে চেয়ারম্যান এইচএম কামরুজ্জামান খোকন বহরমপুর গ্রামের পরেশ চন্দ্র দাস, জুসনা রানী ও সোনেকা খাতুনের কাছ থেকে ২৩ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। এখন ঘর দেওয়া দূরের কথা, টাকাও ফেরত দিচ্ছেন না। টাকা ফেরত চাইলে তাদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

ভুক্তভোগী জুসনা রানী বলেন, ঘর দেওয়ার কথা বলে ২০ হাজার টাকা দাবি করেন ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান। ঋণ করে তাকে ৮ হাজার টাকা দিয়েছি। এক বছর পেরিয়ে গেলেও ঘর দেওয়ার নাম নেই। টাকা ফেরত চাইলে গালাগাল করেন চেয়ারম্যান।

একইভাবে সোনেকা খাতুনের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা চাইলে তিনি ১০ হাজার টাকা দেন। বছর পার হয়ে গেলে ঘর পাননি তিনিও।

তবে ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এটা আমার বিরুদ্ধে একটা চক্রান্ত। এ ব্যাপারে চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈকত ইসলাম বলেন, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।