লালপুরে দলীয় গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে ত্রিবার্ষিক সম্মেলন করার অভিযোগে নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুলসহ ছয় আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এ মামলা করেন।

আদালত অভিযুক্তদের সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন। একই কারণে নতুন করে গঠনতন্ত্রবিরোধী সম্মেলন আয়োজনে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি এসকেন্দার মির্জা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম কাউসার, মাহমুদুল হক মুকুল, আলাউদ্দীন আলাল ও সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল বাশার ভাদু।

বুধবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সভাপতি প্রসাদ কুমার তালুকদার জানান, ২২ ফেব্রুয়ারি উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আফতাব হোসেন ঝুলফু ও সম্পাদক ইসাহাক আলী বাদী হয়ে লালপুর সহকারী জজ আদালতে মামলাটি করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার আদালতের বিচারক মাহাবুব আলম এ নির্দেশনা দেন।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, বিবাদীরা গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে ওয়ালিয়া, ঈশ্বরদী, কদিমচিলান ও এবি (অর্জুনপুর-বরমহাটি) ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন করেছেন। দলের গঠনতন্ত্রের ৩০ ধারা অনুযায়ী ইউনিয়ন কমিটি উপজেলা কমিটির তত্ত্বাবধানে গঠন করা হবে। কিন্তু বিবাদীরা উপজেলা কমিটিকে বাদ দিয়েই ইউনিয়ন কমিটি গঠন করছেন। এ কারণে সম্মেলন আয়োজনে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। নির্দেশের কপি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে বিবাদীদের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য করুন