বিয়ের আয়োজন চলছিল বেশ জোরেশোরেই। কাজি এসে ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা শুরু করতেই বিয়ে বাড়িতে হাজির হলো পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ওই আসর থেকে বর, কাজিসহ দুই পরিবারের সবাই পালিয়ে যান। বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। সোমবার কালাই উপজেলার বোড়াই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।\হকালাই থানার ওসি সেলিম মালিক জানান, উপজেলার পাইকশ্বর গ্রামের নুরে আলমের মেয়ের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয় গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রাজাবিরাট এলাকার কোরবান আলীর ছেলে কবির হোসেনের সঙ্গে। কনের বয়স কম হওয়ায় বিয়ের আয়োজন করা হয় তার আত্মীয়ের বাড়ি একই উপজেলার বোড়াই গ্রামে। বিয়ের খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে যান বিয়ে বন্ধ করতে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে\হবর ও কাজি পালিয়ে যান। পরে মেয়ের বাবাকে বিয়ের বন্ধের নির্দেশ দেন তিনি।\হমেয়ের বাবা নুরে আলম বলেন, না বুঝেই মেয়ের বিয়ের আয়োজন করেছিলাম।

মন্তব্য করুন