ধামইরহাটে জমির দখল নিতে রাতের আঁধারে এক বসতবাড়িতে হামলা চালানো হয়েছে। এ সময় ওই বাড়ি ভাঙচুর করে আড়াই লাখ টাকার মালপত্র লুট করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার রাত ২টার দিকে উপজেলার রূপনারায়ণপুর নিকেস্বর গ্রামের বুদু বর্মণের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

হামলার ঘটনায় বুদু বর্মণ ৯ জনের নাম উল্লেখ করে শতাধিক লোককে আসামি করে বৃহস্পতিবার থানায় মামলা করেছেন।

বুদু বর্মণের অভিযোগ, রূপনারায়ণপুর মৌজার ২৮০ দাগের ১৬ শতক জমি পৈতৃক ও ১৯ শতক জমি ক্রয় সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে সেখানে তিনটি ঘর নির্মাণ করে বসবাস করছেন। শিবপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম মুসা ওই জমির মালিকানা দাবি করে আসছেন। বুধবার রাতে তার নেতৃত্বে শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার পরিবারের ওপর হামলা চালায়। বাধা দিলে তাদের মারধর করা হয়। এক পর্যায়ে তারা বসতবাড়ি ভাঙচুর করে ঘরের বেড়া ও টিনের ছাউনির ১৪ ব্যান্ডিল ঢেউটিন, একটি বাইসাইকেলসহ আড়াই লাখ টাকার মালপত্র পিকআপ ভ্যানে ভর্তি করে নিয়ে যায়। তারা চলে যাওয়ার সময় বলে যায়, রাতের মধ্যে এ জায়গা না ছাড়লে তাদের হত্যা করে নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হবে। এ ঘটনার পর থেকে তিনি পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে আছেন।

এদিকে অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম মুসা জানান, এ ঘটনার সঙ্গে তার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। তবে তার বাবা তছিমদ্দিন ১৯৭৫ সালে এ জমি কেনার পর থেকে বর্গাদারের মাধ্যমে ভোগদখল করে আসছেন। হঠাৎ করে ওই জমিতে টিন দিয়ে বাড়ি তৈরি করা হয়েছে বলে বর্গাদার তাকে জানায়।

ওসি মো. আব্দুল মমিন বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারসহ লুণ্ঠিত মালপত্র উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য করুন