মহাদেবপুরে মোবাইল চুরির অভিযোগে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের শিকার শিহাব হোসেন (১১) নামে মানসিক প্রতিবন্ধী শিশুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন নওগাঁ পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান মিয়া।

মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় চিকিৎসকরা জানান, শিহাবের উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। চিকিৎসকের কথা শুনে দিশেহারা হয়ে পড়েন বাবা অটোরিকশা চালক খোরশেদ আলম। বিষয়টি জানতে পেরে শুক্রবার রাতে নওগাঁর পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান মিয়া তার সঙ্গে কথা বলেন এবং ছেলের চিকিৎসার দায়িত্ব নেন। শনিবার সকালেই পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে মহাদেবপুর থানার ওসি হাসপাতালে গিয়ে ওই শিশুর চিকিৎসার খোঁজখবর নেন এবং ওষুধ কিনে দেন।

খোরশেদ আলম বলেন, শিহাবের চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। অটোরিকশা চালিয়ে সংসার চালাতেই হিমশিম খাচ্ছি। এরই মধ্যে অনেক ঋণ করে ফেলেছি। এ অবস্থায় পুলিশ সুপার চিকিৎসার সব খরচ বহনের আশ্বাস দিয়েছেন। তিনি পাশে না দাঁড়ালে ছেলেটার অনেক বড় ক্ষতি হতো।

মন্তব্য করুন