ধর্ষণ মহামারী! সিয়েরালিওনে জরুরি অবস্থা

প্রকাশ: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

সিয়েরালিওনের প্রেসিডেন্ট জুলিয়াস মাদা বিও তার দেশে ধর্ষণ ও যৌন সহিংসতার ঘটনায় জরুরি অবস্থ্থা ঘোষণা করেছেন। আত্মীয়ের দ্বারা পাঁচ বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হলে বৃহস্পতিবার ক্ষুব্ধ হয়ে এ ঘোষণা দেন মাদা। খবর দ্য নিউইয়র্ক টাইমসের।

ধর্ষকদের বিরুদ্ধে কঠোর মনোভাব নিয়ে এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ধর্ষকদের সর্বোচ্চ সাজা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে তার প্রশাসন। শিগগির এ বিষয়ে নতুন আইনের ঘোষণাও দেন তিনি।

পশ্চিম আফ্রিকার ছোট্ট এ দেশটিতে গত এক বছরে আট হাজার ৫০৫টি ধর্ষণের মামলা হয়েছে। ৭৮ লাখ লোকের দেশে এ সংখ্যাকে রীতিমতো মহামারী আখ্যা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট। কিন্তু এটি শুধু লিপিবদ্ধ হওয়া ধর্ষণ সংখ্যা।

প্রেসিডেন্ট জুলিয়াস মাদা বিও শিশু ধর্ষণে যাবজ্জীবন সাজা দেওয়ার আহ্বান জানান বিচার বিভাগকে। তিনি ধর্ষণের শিকার শিশু ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ করেন সবাইকে।

রেইনবো ইনিশিয়েটিভ নামের একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা জানিয়েছে, ২০১৮ সালে ধর্ষণের শিকার ৭৬ শতাংশের বয়স ১৫ বছরের নিচে। সংস্থাটি ধর্ষণের শিকার নারী ও শিশুদের মানসিক ও সার্বিক চিকিৎসা নিশ্চিতে কাজ করে আসছে।





সিয়েরালিওনে ধর্ষণের এমন মহামারী এই প্রথম নয়, ২০০৩ সালে মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জানিয়েছিল, ১৯৯১ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত গৃহযুদ্ধে সিয়েরালিওনে সহিংসতার অন্যতম শিকার ছিলেন নারীরা। এই ১৩ বছরে অগণিত নারী ধর্ষণের শিকার হন।