যুদ্ধ নয়, জবাব দিতে প্রস্তুত সৌদি আরব

প্রকাশ: ২০ মে ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

মধ্যপ্রাচ্যে নতুন কোনো যুদ্ধ চায় না সৌদি আরব। তবে আক্রান্ত হলে 'সর্বশক্তি' দিয়ে জবাব দিতে প্রস্তুত আছে তারা। রোববার এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবেইর। তবে সৌদির এমন অবস্থানের আগে পশ্চিমা গণমাধ্যমে খবর আসে, ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামতে যুক্তরাষ্ট্রকে উস্কাচ্ছে সৌদি আরব। খবর রয়টার্সের।

সৌদি আরবের দুটি তেলবাহী ট্যাঙ্কার ও তেল পাম্প স্টেশনে হামলার জন্য ইরানের দিকে অভিযোগের তীর ছোড়ে সৌদি কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে তাদের সঙ্গে ইরানের বাগ্‌যুদ্ধ শুরু হয়। রোববার এক সংবাদ সম্মেলন আদেল আল জুবেইর অভিযোগ করেন, মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চল অস্থিতিশীল করতে চাচ্ছে ইরান। তিনি বলেন, ইরান যেন মধ্যপ্রাচ্যকে অস্থিতিশীল করা থেকে বিরত থাকে তার দায়িত্ব নিতে বিশ্ব সম্প্রদায়কে।

গত মঙ্গলবার সৌদি আরবের দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা হয়। ইরানের অনুগত ইয়েমেনের শিয়া হুতি বিদ্রোহীরা ওই হামলার দায় স্বীকার করে। তেহরানই ওই হামলার নির্দেশ দিয়েছে বলে অভিযোগ করে রিয়াদ। ওই হামলার দু'দিন আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতের উপকূলে চারটি জাহাজে অন্তর্ঘাতমূলক হামলা হয়। হামলার শিকার চারটি জাহাজের মধ্যে সৌদি আরবের দুটি তেলবাহী ট্যাঙ্কার আছে। কোনো পক্ষ এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে এসব হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ ইরান প্রত্যাখ্যান করলেও এ নিয়ে টান টান উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। দেখা দেয় যুদ্ধের সম্ভাবনা।

নাগরিকদের ইরাক-ইরান ছাড়ার নির্দেশ বাহরাইনের :যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত বাহরাইন সরকার তাদের নাগরিকদের জরুরি ভিত্তিতে ইরাক ও ইরান ত্যাগ করার নির্দেশ দিয়েছে। একইসঙ্গে ওই দুই দেশে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। নাগরিক নিরাপত্তার জন্যই এসব নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা বিএনএর এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।