গরু চুরির জন্যও ফাঁসি হয় কিমের দেশে

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

দক্ষিণ কোরিয়ার একটি এনজিও প্রায় ৩১৮টি স্থান চিহ্নিত করেছে। এসব স্থান উত্তর কোরিয়ার সরকার প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার জন্য ব্যবহার করে থাকে। চার বছরের বেশি সময় ধরে দেশটি থেকে গোপনে পালিয়ে আসা ৬১০ জনের সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে ট্রানজিস্টাল জাস্টিস ওয়ার্কিং গ্রুপ নামে একটি মানবাধিকার সংস্থা এ রিপোর্ট সংগ্রহ করেছে। গতকাল মঙ্গলবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, গরু চুরির জন্যও ফাঁসি হয় কিম জং উনের দেশে। খবর বিবিসির।

কিমের দেশে যে কোনো বিষয়ে মৃত্যুদণ্ড কায়েম করার নানা রকম নৃশংস পদ্ধতির কথা বরাবরই উঠে এসেছে গণমাধ্যমে। মানবাধিকার সংস্থাটির রিপোর্টে জানা যায়, বেশ কয়েক দশক ধরে গরু চুরির জন্য, এমনকি দক্ষিণ কোরিয়ার টিভি চ্যানেল দেখার জন্যও হত্যার ঘটনা ঘটছে উত্তর কোরিয়ায়।

সংস্থাটি আরও জানায়, নদী, মাঠ, বাজার, স্কুল এবং খেলার মাঠের কাছাকাছি স্থানে জনগণের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়ে থাকে।