ভারতীয় শিল্পপতি বি কে বিড়লার জীবনাবসান

প্রকাশ: ০৫ জুলাই ২০১৯

সমকাল ডেস্ক

না ফেরার দেশে চলে গেলেন ভারতের দিকপাল শিল্পপতি ও বিড়লা গ্রুপের স্বপ্নদ্রষ্টা ঘনশ্যাম বিড়লার ছোট ছেলে বসন্ত কুমার বিড়লা। ব্যবসা-বাণিজ্যের দুনিয়ায় তিনি বি কে বিড়লা নামেই বেশি পরিচিত ছিলেন। গত বুধবার মুম্বাইয়ে নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। মূলত তার হাত ধরেই বিড়লা গ্রুপের ব্যবসা বহু শাখা-প্রশাখায় বিস্তৃত হয়। গতকাল রাতে কলকাতায় তার শেষকৃত্য হওয়ার কথা রয়েছে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া ও আনন্দবাজারের।

বি কে বিড়লা দুই মেয়ে মঞ্জুশ্রী খৈতান ও জয়শ্রী মোহতাকে রেখে গেছেন। ২০১৫ সালে তার স্ত্রী সরলা বিড়লার মৃত্যু হয়। তাদের একমাত্র ছেলে আদিত্য বিক্রম বিড়লার মৃত্যু হয় ১৯৯৫ সালে। বর্তমানে বিড়লা গ্রুপের দেখাশোনা করছেন তার নাতি কুমারমঙ্গলম বিড়লা।

কয়েক বছর ধরে বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন বি কে বিড়লা। কিছুদিন আগে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে কুমারমঙ্গলম বিড়লা চিকিৎসার জন্য তাকে মুম্বাই নিয়ে যান। সেখানে বুধবার মারা যান এ কিংবদন্তি শিল্পপতি। গতকাল সোমবার তার মরদেহ কলকাতার বিড়লা পার্কে তাদের বাসভবনে নিয়ে আসা হয়। রাতেই তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করার

কথা রয়েছে।

১৯২১ সালে বসন্ত কুমার বিড়লার জন্ম। মাত্র ১৫ বছর বয়সে পারিবারিক ব্যবসায় যোগ দেন তিনি। পরে গড়ে তোলেন বি কে বিড়লা শিল্পগোষ্ঠীর ফ্ল্যাগশিপ সংস্থা কেশোরাম ইন্ডাস্ট্রিজ। তার শিল্পগোষ্ঠীর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- সেঞ্চুরি টেক্সটাইলস, সেঞ্চুরি এন?কা ও জয়শ্রী টি অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ।

এ ছাড়া কৃষ্ণার্পণ চ্যারিটি

ট্রাস্টের চেয়ারম্যানও ছিলেন বি কে বিড়লা।

এ ট্রাস্ট রাজস্থানের পিলানিতে নিজস্ব অর্থায়নে বি কে বিড়লা ইনস্টিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি পরিচালনা করে। ভারতে শিক্ষা বিস্তারে বি কে বিড়লা ২৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে অবদান

রেখে গেছেন।