এবার হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রীর আবদার

কাশ্মীরি বালিকাদের এনে বিয়ে করা যাবে

প্রকাশ: ১১ আগস্ট ২০১৯     আপডেট: ১১ আগস্ট ২০১৯      

সমকাল ডেস্ক

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর ৬ আগস্ট মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্য নাথের রাজ্য উত্তর প্রদেশের বিধায়ক বিক্রম সিং সাইনি কাশ্মীরি নারীদের বিয়ে করার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে বলে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তা নিয়ে সমালোচনার ঝড় থামতে না থামতেই এবার হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা মনোহর লাল খাট্টার একই ধরনের মন্তব্য করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। গতকাল হরিয়ানার ফাতেহাবাদে কন্যাশিশু সুরক্ষাবিষয়ক এক অনুষ্ঠানে এই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল হওয়ায় এখন কাশ্মীরি বালিকাদের এনে বিয়ে করা যাবে।' খবর দ্য হিন্দুর।

কাশ্মীরি বালিকাদের এনে বিয়ে করার যুক্তি হিসেবে মনোহর খাট্টার বলেন, আমাদের মন্ত্রী ও পি ধানকরকে প্রায়ই বলতে শুনি, হরিয়ানার তরুণদের বিয়ের জন্য তিনি বিহার থেকে তার শ্যালিকাদের নিয়ে আসবেন। এখন অন্যরা বলছে, কাশ্মীরের রাস্তা পরিস্কার। আমরা এখন কাশ্মীরের বালিকাদের আনতে পারব।'

এদিকে, ৫ আগস্ট ভারত সরকার জম্মু-কাশ্মীর ভেঙে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ নামে পৃথক দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল সৃষ্টির ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও গুগলে লাখ লাখ বার 'কাশ্মীরি গার্ল' সার্চ দেওয়া হয়েছে। ভূস্বর্গ কাশ্মীরি নারীদের সৌন্দর্য সুবিদিত। তবে ভারতের সংবিধানের ৩৭০ ও ৩৫এ অনুচ্ছেদের কারণে সেখানকার নারীদের বাইরের কেউ বিয়ে করতে পারত না। এবার সে বাধা কেটে যাওয়ায় ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের তরুণরা কাশ্মীরি মেয়েদের প্রতি এক নতুন ধরনের উন্মাদনা দেখাতে শুরু করেছে।