ভারতের সাবেক অর্থ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী বিজেপি নেতা অরুণ জেটলি পরলোক গমন করেছেন। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টা ৭ মিনিটে দিল্লির অল ইন্ডিয়া মেডিকেল সায়েন্সেসে (এআইএমএস) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে গেছেন তিনি। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবে পরিচিত অরুণ জেটলি ৯ আগস্ট শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে এআইএমএসে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল তাকে। তার মৃত্যুতে ভারতের রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বাংলাদেশের আইনমন্ত্রী আনিসুল হক তার মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছেন। রোববার দুপুরে দিল্লির নিগমবোধ ঘাটে তার শেষকৃত্য হবে। খবর এনডিটিভি ও আনন্দবাজারের।

দৃপ্ত আইনজীবী থেকে রাজনীতির মাঠ কাঁপানো অরুণ জেটলি রাজনৈতিক সহাবস্থানে বিশ্বাসী ছিলেন। সব দলেই তার গ্রহণযোগ্যতা ছিল। তবে অসুস্থতার কারণে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হননি। এরপরও তাকে মন্ত্রী করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন নরেন্দ্র মোদি। কিন্তু তিনি অপারগতা প্রকাশ করেন। কারণ দীর্ঘদিন ধরে জটিল রোগে ভুগছিলেন অরুণ জেটলি। ডায়াবেটিসের সমস্যা ছিল। অর্থমন্ত্রী থাকাকালে গত বছর কিডনি প্রতিস্থাপনও হয় তার। যে কারণে ফেব্রুয়ারি মাসে অন্তর্বর্তী বাজেটের সময় সংসদে উপস্থিত থাকতে পারেননি। মূলত তখন থেকেই রাজনীতিতে আর সেভাবে দেখা যায়নি তাকে। তবে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের পক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় ছিলেন তিনি।

মন্তব্য করুন