কভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় নেওয়া কঠোর সব পদক্ষেপের কারণে নিউজিল্যান্ড কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ মন্দার মুখোমুখি হয়েছে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রুখতে তুলনামূলকভাবে সফল হওয়ায় দেশটির এসব পদক্ষেপ বিশ্বজুড়ে ব্যাপক প্রশংসিতও হয়েছিল। খবর বিবিসির।

লকডাউন এবং সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়ার মতো পদক্ষেপগুলোর কারণে এপ্রিল থেকে জুনের মধ্যেই নিউজিল্যান্ডের জিডিপি ১২ দশমিক ২ শতাংশ সংকুচিত হয়ে পড়েছে।

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটের পর দেশটিতে এটিই প্রথম মন্দা। ১৯৮৭ সালে এখনকার পদ্ধতিতে হিসাব শুরুর পর থেকে দেখা দেওয়া মন্দাগুলোর মধ্যে এটি সবচেয়ে ভয়াবহ। নিউজিল্যান্ডের সরকার অবশ্য মহামারি মোকাবিলায় তাদের নেওয়া পদক্ষেপগুলোই অর্থনীতির দ্রুত পুনরুদ্ধারে ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছে। 'সক্রিয়' কভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা হাতেগোনা হওয়ায় দেশটিকে অনেকাংশেই 'ভাইরাস মুক্ত' বলা যায়।

সংক্রমণ মোকাবিলায় বিধিনিষেধের কারণে দেশটিতে দেখা দেওয়া অর্থনৈতিক সংকট আগামী মাসের সাধারণ নির্বাচনেও গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হিসেবে বিবেচিত হবে।

মন্তব্য করুন