বাইডেনের জন্য 'আন্তরিক' চিঠি ট্রাম্পের

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০২১

সমকাল ডেস্ক

নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠানে থাকবেন না আগেই জানিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে তিনি উত্তরসূরির জন্য একটি 'খুব আন্তরিক চিঠি' রেখে গেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ কথা জানিয়েছেন। গত বুধবার শপথের পর ওভাল অফিসে ট্রাম্পের চিঠি সম্পর্কে এমনটিই গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন বাইডেন। খবর সিএনএনের।

নির্বাহী আদেশে সই করার পর ওভাল অফিসের রেজুলেশন ডেস্ক থেকে বাইডেন জানিয়েছেন, ট্রাম্পের প্রতি শ্রদ্ধা থেকে তিনি চিঠিটির বিষয়বস্তু এখনই প্রকাশ করবেন না।

সাংবাদিকদের বাইডেন বলেছেন, প্রেসিডেন্ট খুব আন্তরিক একটি চিঠি লিখেছেন। যেহেতু এটি ব্যক্তিগত, তাই আমি তার সঙ্গে কথা না বলে এর বিষয়বস্তু জানাব না। তবে খুবই উদার ছিল চিঠির ভাষা। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে এখনই কথা বলার কোনো পরিকল্পনাও প্রেসিডেন্টের নেই।

এদিকে ট্রাম্পের এক সহযোগী জানিয়েছেন, বাইডেনকে দেওয়া চিঠিটি একটি 'ব্যক্তিগত নোট'। সেখানে দেশের সাফল্য কামনা করা হয়েছে ও নতুন প্রশাসনকে দেশের যত্ন নেওয়ার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে উত্তরসূরির জন্য বিদায়ী প্রেসিডেন্টের চিঠি রেখে যাওয়ার রীতি আছে।

এর আগে একই স্থানে ট্রাম্পের জন্য চিঠি রেখে গিয়েছিলেন বারাক ওবামা। সেই চিঠিতে ওবামা ট্রাম্পের প্রতি লিখেছিলেন, 'আমরা এই অফিসের (ওভাল অফিস) ক্ষণিকের দখলদার।' অন্যদিকে, রীতি না হলেও আন্তরিকতা দেখিয়ে ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকেও চিঠি দিয়েছেন সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। বাইডেন-হ্যারিসের অভিষেক অনুষ্ঠানেও অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট হিসেবে চার বছর মেয়াদ শেষে ডোনাল্ড ট্রাম্প গত বুধবার সকালে শেষবারের মতো এয়ারফোর্স ওয়ান উড়োজাহাজে ফ্লোরিডার পথে রওনা দেন। হোয়াইট হাউস ত্যাগের সময় বলেন, প্রেসিডেন্ট হওয়া ছিল সারাজীবনের সম্মানের বিষয়।

নিজের বিদায় অনুষ্ঠান হোয়াইট হাউস বা ওয়াশিংটন ডিসিতে নয়, বরং মেরিল্যান্ডের অ্যান্ড্রুস বিমানঘাঁটিতে আয়োজন করেছেন। বিদায় অনুষ্ঠানের ভাষণেও একবারের জন্য জো বাইডেনের নাম উচ্চারণ করেননি তিনি।